খালেদার দুর্নীতির মামলার পরবর্তী তারিখ ১০ ডিসেম্বর
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » অপরাধ ও আইন

খালেদার দুর্নীতির মামলার পরবর্তী তারিখ ১০ ডিসেম্বর

নাইকো মামলায় আদালতে হাজিরা দিতে আজ সোমবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। ছবি তুলেছেন মহুবার রহমান

নাইকো মামলায় আদালতে হাজিরা দিতে গত সোমবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। ছবি তুলেছেন মহুবার রহমান

বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলার পরবর্তী জেরা ও সাক্ষ্য গ্রহণের তারিখ ১০ ডিসেম্বর নির্ধারণ করেছে আদালত।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর বকশীবাজারের আলিয়া মাদ্রাসা-সংলগ্ন মাঠে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালত-৩-এর স্থাপিত বিশেষ জজ আবু আহমেদ জমাদারের অস্থায়ী আদালতে চারজন সাক্ষীকে আসামিপক্ষের জেরা ও নতুন এক সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আদালত এ তারিখ ধার্য করেন। মামলার আসামি খালেদা জিয়া আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন।

উচ্চ আদালতে লিভ টু আপিল থাকায় আসামিপক্ষের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার জেরা ও সাক্ষ্যগ্রহণ মুলতবি রেখেছে আদালত।

খালেদা জিয়া অসুস্থ থাকায় তার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া আদালতে সময়ের আবেদন করেন। এ আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক সময়ের আবেদন মঞ্জুর করেন।

চিকিৎসার জন্য লন্ডনে থাকায় এর আগেও কয়েকটি ধার্য তারিখে আদালতে হাজির হতে পারেননি খালেদা জিয়া । এ জন্য তার পক্ষে আইনজীবীরা হাজিরা দেন।

চিকিৎসার জন্য প্রায় দুই মাস লন্ডনে থেকে গত ২১ নভেম্বর দেশে ফেরেন তিনি। এরপর গত ২৬ নভেম্বর মামলার ধার্য তারিখেও আদালতে হাজির হননি তিনি। তার পক্ষে আইনজীবীদের হাজিরা মঞ্জুর করে আদালত।

তবে গত ৩০নভেম্বর নাইকো সংক্রান্ত দুর্নীতি মামলায় নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন পান খালেদা জিয়া। ঢাকার ৯ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক এম আমিনুল ইসলাম নাইকো মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন মঞ্জুর করে এ আদেশ দেয়।

ঢাকার বকশীবাজার এলাকার উমেষ দত্ত রোডে আলিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে স্থাপিত অস্থায়ী বিশেষ আদালতের বিচারক আবু আহমেদ জমাদারের আদালতে জিয়া চ্যারিটেবল ও জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলার বিচার কার্যক্রম চলছে। গত ১৯ নভেম্বর জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার আরো তিন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়। সাক্ষ্য দেন মামলাটির ২৩ থেকে ২৫তম সাক্ষী (জব্দ তালিকার সাক্ষী) ডাচ-বাংলা ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার কামরুজ্জামান এবং দুদকের দুই কনস্টেবল মঞ্জুরুল হক ও সিরাজুল হক। এ সাক্ষীদের জেরা এবং পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য কাল তারিখ ধার্য রয়েছে বলে আদালত সূত্র জানায়। গত ২৬ নভেম্বর মামলার ২১ ও ২২ তম সাক্ষীর জেরা অনুষ্টিত হয়।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের নামে দুর্নীতির অভিযোগে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় দুদক মামলা দায়ের করে। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাষ্টের নামে অবৈধভাবে অর্থ লেনদেনের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়াসহ চারজনের নামে ২০১১ সালের ৮ আগস্ট তেজগাঁও থানায় মামলা দায়ের করেন দুদকের সহকারী পরিচালক হারুনুর রশিদ। গত ১৯ মার্চ দুই মামলায় অভিযোগ গঠন করা হয়।

এই বিভাগের আরো সংবাদ