সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের আইপিও’র শেয়ার বিওতে জমা
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » পুঁজিবাজার

সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের আইপিও’র শেয়ার বিওতে জমা

সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের লোগো।

সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের লোগো।

লেনদেন শুরু হওয়া সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের আইপিওর লটারিতে পাওয়া শেয়ার বিনিয়োগকারীদের বিও হিসাবে জমা হয়েছে। আজ বুধবার সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেডের (সিডিবিএল) মাধ্যমে শেয়ার জমার কাজ সম্পন্ন হয়েছে। সিডিবিএল সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের শেয়ার লেনদেন শুরু হয়েছে গত ২৩ নভেম্বর সোমবার। সোমবার সকালে লেনদেন শুরু হওয়ার আগে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সঙ্গে চুক্তি সই হয় কোম্পানিটির। ডিএসইতে সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ট্রেডিং কোড হবে “SIMTEX”।  আর কোম্পানি কোড হবে- ১৭৪৬৯।

এছাড়া, গত ৬ অক্টোবর সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে কোম্পানিটির লটারি ড্র অনুষ্ঠিত হয়।

সূত্রে জানা গেছে, কোম্পানিটি প্রাথমিক শেয়ারহোল্ডার নেওয়ার জন্য গত  ৬ সেপ্টেম্বর থেকে ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আবদেন গ্রহণ করে। দেশি ও প্রবাসী উভয় বিনিয়োগকারীর জন্য এই সময় নির্ধারণ করা হয়।

আরও জানা গেছে, আইপিও আবেদন শেষ হওয়া সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের লিমিটেডের ১৬ দশমিক ৫১ গুণ আবেদন জমা পড়েছে। ৬০ কোটি টাকার বিপরীতে ৯৯০ কোটি ৭০ লাখ ২০ হাজার টাকার আবেদন জমা পড়েছে।

নির্ধারিত সময়ে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে আবেদন আসে ১০ লাখ ৫৯ হাজার ২৪১টি, প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে আসে ৩৯ হাজার ৫৩৮টি, ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে আসে ১ লাখ ২৩ হাজার ৭২৪টি এবং মিউচ্যুয়াল ফান্ডের আবেদন পড়ে ৩৬টি। সব মিলিয়ে টাকার পরিমাণ  ৯৯০ কোটি ৭০ লাখ ২০ হাজার।

কোম্পানিটিকে পুঁজিবাজার থেকে ৬০ কোটি টাকা তোলার অনুমোদন দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি। এ হিসেবে কোম্পানির আইপিওতে আবেদন পড়েছে ১৬ দশমিক ৫১ গুণ।

এর আগে, বিএসইসির ৫৫৩তম সভায় এ কোম্পানির আইপিও অনুমোদন দেওয়া হয়। কোম্পানিটি পুঁজিবাজারে ৩ কোটি শেয়ার ছেড়ে ৬০ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে। কোম্পানিটিকে ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের সাথে ১০ টাকা প্রিমিয়ামসহ ২০ টাকা মূল্যে শেয়ার ইস্যুর অনুমোদন দিয়েছে কমিশন।

২০১৪ সালের ৩০ জুন শেষ হওয়া হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৩ টাকা ৩৩ পয়সা। নেট এসেট ভ্যালু (এনএভি) হয়েছে ১৯ টাকা ৬০ পয়সা ।

জানা গেছে, কোম্পানিটি পুঁজিবাজার থেকে টাকা সংগ্রহ করে মূলধনী বিনিয়োগ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ, চলতি মূলধন অর্থায়ন ও আইপিওর কাজে ব্যয় করবে।

কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে এএফসি ক্যাপিটাল লিমিটেড এবং ইম্পেরিয়াল ক্যাপিটাল লিমিটেড।

অর্থসূচক/জিইউ/এআরএস/

এই বিভাগের আরো সংবাদ