পানির স্পর্শ ছাড়াই যে জীবন …
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » টুকিটাকি

পানির স্পর্শ ছাড়াই যে জীবন …

পানির অপর নাম জীবন হলেও প্রতিবছর বহু মানুষের মৃত্যুর জন্য দায়ী থাকে পানি। এর অধিকাংশই পানিতে ডুবে মৃত্যু। আবার কেউ কেউ পানিবাহিত রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

Niki Hurster

পানি পান ও পানির স্পর্শ ছাড়াই ১২ বছর ধরে জীবনযাপন করছেন নিকি হার্স্ট।

তবে মানুষ পানি থেকে দূরে থাকেন বা পানি পান করেন না এবং কোনো কাজেই পানির ব্যবহার করেন না- এমনটা শুনতে হয়ত অবিশ্বাস্যই মনে হবে।

অবিশ্বাস্য হলেও সত্য, ১২ বছরে একবারের জন্যও পানি স্পর্শ করেননি নিকি হার্স্ট নামে ইংল্যান্ডের এক নারী। এমনকি পানি পানও করেননি তিনি। শুধু তাই নয়, পানিজাতীয় সব খাবার থেকেও নিজেকে বঞ্চিত করেছেন ওই ব্রিটিশ নারী। যতদিন বেঁচে থাকবেন ততদিন পানি থেকে দূরেই থাকতে হবে তাকে।

গত ১২ বছরে একবারও গোসল করেননি নিকি। এমনকি এক ফোঁটা পানি পানও করতে পারেননি তিনি। বাড়ির কোনো কিছু পরিষ্কারের ক্ষেত্রে শরীরে পানি না লাগাতে হাতে গ্লাভস লাগিয়ে কাজ করতে হয় তাকে। এমনকি পানি পানের ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে হচ্ছে ইঞ্জেকশন।

পানি ব্যবহার না করার বিষয়ে নিকি জানান, ফোঁটা পরিমাণ পানির স্পর্শ পেলেও অসুস্থ হয়ে পড়তেন তিনি। তাই চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী গত এক যুগ ধরে পানি থেকে নিজেকে দূরে রাখতে হয়েছে। সেইসঙ্গে বিশেষ চিকিৎসাও চলছে তার।

নিকির এক চিকিৎসকের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, নিকির জন্য পানি পান করাটাও বিপজ্জনক। তার শরীরের প্রয়োজনীয় পানির চাহিদা মেটাতে ইঞ্জেকশনের ব্যবহার করা হয়। প্রতি ৫০ লাখ মানুষের মধ্য একজনের ক্ষেত্রে এমন সমস্যা থাকতে পারে।

তবে গোটা ইংল্যান্ডে আর কোনো ব্যক্তির ক্ষেত্রে এমনটা করতে হয় না বলে জানিয়েছেন তিনি।

ওই চিকিৎসক আরও বলেন, প্রতি মাসে নিকির রক্তের প্লাজমাও পরিবর্তন করতে হয়। এই সমস্যা থেকে কখনওই একেবারে মুক্তি পাবেন না তিনি। কিন্তু নিয়মিত চিকিৎসা করা হলে স্বাভাবিক জীবনযাপন করতে পারবেন নিকে হার্স্ট।

এই বিভাগের আরো সংবাদ