ঝালকাঠির ধানসিড়িতে ব্রি-৪৯ ধানের বাম্পার ফলন
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » কৃষি

ঝালকাঠির ধানসিড়িতে ব্রি-৪৯ ধানের বাম্পার ফলন

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উদ্যোগে এবং কৃষি ও খাদ্য নিরাপত্তা কর্মসূচীর সহযোগিতায় ঝালকাঠি সদর উপজেলায় ধানসিড়ি ইউনিয়নের চরকাঠি ব্লকে ব্রি-ধান-৪৯-এর কর্তন ও মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত মাঠ দিবসে প্রধান অতিথি ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. আবু বকর ছিদ্দিক। অন্যান্যের মধ্যে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. আসিফ ইকবাল, উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান, ইউপি চেয়ারম্যান মো. জাকির হোসেন, ব্র্যাক প্রতিনিধি মো. আবদুস সামাদ, সাবিনা সুলতানা ও রেজাউল কবির উপস্থিত ছিলেন ।

কর্তন শেষে দেখা যায়, প্রতি একরে ব্রি-ধান ৪৯ এর ফলন হয়েছে ৬২ মন, যা স্থানীয় জাতের চেয়ে প্রায় দ্বিগুন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. আবু বকর ছিদ্দিক চাষীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আপনারা ব্র্যাক থেকে হাতে কলমে যে কারিগরি ও উপকরণ সহায়তা পেয়েছেন, তা আগামীতে কাজে লাগালে এলাকায় উফসী ধান ব্যাপকভাবে সম্প্রসারিত হবে।’

ব্লকের চাষী মো. শাহআলম বলেন, ‘আমরা আগে এখানে স্থানীয় জাতের আমন ধান চাষ করতাম। এতে ফলন খুব কম হত। তা দিয়ে আমাদের ছয় মাসের খাবার হত। বাকী ছয় মাস চাল ক্রয় করে খেতে হত। এ বছর ব্র্যাক থেকে হাতে কলমে কারিগারি শিক্ষা নিয়ে ব্রি-ধান-৪৯ চাষাবাদ করেছি। আমরা ১৯ জন চাষী ব্রি-ধান-৪৯ চাষ করে বাম্পার ফলন পেয়েছি। এ চাষাবাদ সম্পর্কে যিনি কারিগরি প্রশিক্ষন দিয়েছেন তার কথা আমরা আজীবন মনে রাখব। কারণ এবার যে ফলন হয়েছে, তা দিয়ে আমরা সারা বছরই খাদ্যের চাহিদা মিটাতে পারব।’

ব্র্যাকে সদর উপজেলা ব্যবস্থাপক মো. ফারুকুজ্জামান জানান, ২০১২ সালের জুলাই থেকে ব্র্যাক কৃষি ও খাদ্য নিরাপত্তা কর্মসূচি ঝালকাঠি সদর উপজেলায় কার্যক্রম শুরু করে। এ পর্যন্ত তারা ৭৬১ একর জমিতে হাইব্রিড ধান, ৬০৮ একর জমিতে উফসী ধান, ৩৩৩ একর জমিতে ভুট্টা, ৬০৮ একর জমিতে সূর্যমুখী, ২৫১ বিঘা জমিতে সবজি এবং ২৭ একর জলাবদ্ধ জমিতে কার্প জাতীয় মাছ চাষ প্রকল্প সম্পন্ন করেছে। এসব প্রকল্পে ৬ হাজার ৬শ’ জন অংশগ্রহণকারী চাষী হাতে কলমে কারিগরি প্রশিক্ষণ ও উপকরণ সহায়তা পেয়েছেন।

সূত্র: বাসস

এই বিভাগের আরো সংবাদ