'নবায়ন ফি না দেওয়ায় বন্ধ হলো লক্ষাধিক বিও হিসাব'
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » পুঁজিবাজার

‘নবায়ন ফি না দেওয়ায় বন্ধ হলো লক্ষাধিক বিও হিসাব’

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল অবদুল মুহিত বলেছেন, ২০১৪-১৫ অর্থবছরে ১ লাখ ৩ হাজার ৮৩৩টি বেনিফিশিয়ারি ওনার (বিও) একাউন্ট বন্ধ করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সংসদে সরকারি দলের সদস্য কামাল আহমেদ মজুমদারের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী মন্ত্রী বলেন, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নবায়ন ফি জমা না দেয়ায় এসব হিসাব বন্ধ করা হয়েছে।

Abul Mal Abdul Muhit

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত-ফাইল ছবি

সরকারি দলের সদস্য দিদারুল আলমের এক প্রশ্নের জবাবে মুহিত বলেন, ‘পুঁজিবাজারে ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের সহায়তা তহবিল’-এর জন্য বরাদ্দকৃত ৯শ’ কোটি টাকা ইতোমধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংক বরাবর ছাড় করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ছাড়কৃত ওই অর্থ থেকে ২০১৫ সালের ৪ নভেম্বর পর্যন্ত ৭৩৩ কোটি ৮৯ লাখ টাকার ঋণের আবেদন পাওয়া যায়। এরমধ্যে ৬৭৮ কোটি ১৫ লাখ টাকা ঋণের অনুমোদন দেয়া হয়। অনুমোদনকৃত ঋণের ৬১৬ কোটি ৬৩ লাখ টাকা ইতোমধ্যে বিতরণ করা হয়েছে এবং ৬১ কোটি ৫২ লাখ টাকা বিতরণের অপেক্ষা রয়েছে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, সর্বশেষ কিস্তির ৩শ’ কোটি টাকা গত ২০১৫ সালের জুনে ছাড় করা হয়েছে, যার প্রেক্ষিতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ঋণপ্রাপ্তির আবেদনের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করছে।
আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেন, পুঁজিবাজারে ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের জন্য সহায়তা তহবিলে বরাদ্দকৃত ৯শ’ কোটি টাকা বিতরণের লক্ষ্যে সরকার কর্তৃক প্রণীত নীতিমালা অনুযায়ী ঋণ প্রদানের জন্য আরোপিত শর্তসমূহের ব্যাপারে ঋণগ্রহণকারী আগ্রহী প্রতিষ্ঠানসমূহ থেকে অদ্যাবধি কোন নেতিবাচক মন্তব্য পাওয়া যায়নি।
এদিকে এ বিষয়ে বিও হিসাব বন্ধের বিষয়ে ডিএসইর সাবেক সভাপতি শাকিল রিজভী অর্থসূচককে বলেন, আমি মাননীয় মন্ত্রীর সঙ্গে এক মত। নবায়ন ফি না দেওয়ায় এসব হিসাব বন্ধ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, বিও হিসাব খোলা ও বন্ধ হওয়া এটি চলমান প্রক্রিয়া। এক দিকে নবায়ন ফির জন্য বন্ধ হয়; অন্যদিকে আবার নতুন হিসাব খোলা হয়। বন্ধ হওয়া হিসাবগুলো বেশির ভাগ প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) হিসাব। হয়তো তারা লটারি না পেয়ে হতাশ হয়ে হিসাব বন্ধ করে দিচ্ছেন।

অর্থসূচক/গিয়াস

এই বিভাগের আরো সংবাদ