জিএসপি পুনর্বহালের দাবি আইবিএফবির
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » কর্পোরেট সংবাদ

জিএসপি পুনর্বহালের দাবি আইবিএফবির

ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ফোরাম অফ বাংলাদেশ (আইবিএফবি)-এর ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ বাংলাদেশের জিএসপি সুবিধা পুনর্বহালের জোর দাবী জানিয়েছেন।

গত ৩ অক্টোবর ওয়াশিংটন ডিসি-তে আইবিএফবি নেতৃবৃন্দ মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের সঙ্গে এক বৈঠকে মিলিত হন। বৈঠকের পরে এক ফটো সেশনে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের ব্যবসা ও বাণিজ্য বিষয়ক মুখ্য উপ-সহকারী সেক্রেটারী কুর্ট ডব্লিউ টং (ডান থেকে দ্বিতীয়), আইবিএফবি সভাপতি হাফিজুর রহমান খান (ডান থেকে তৃতীয়), আইবিএফবি’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী (ডানে), পররাষ্ট্র দপ্তরের বাংলাদেশ বিষয়ক কর্মকর্তা । ছবি সংগৃহীত

গত ৩ অক্টোবর ওয়াশিংটন ডিসি-তে আইবিএফবি নেতৃবৃন্দ মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের সঙ্গে এক বৈঠকে মিলিত হন। বৈঠকের পরে এক ফটো সেশনে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের ব্যবসা ও বাণিজ্য বিষয়ক মুখ্য উপ-সহকারী সেক্রেটারী কুর্ট ডব্লিউ টং (ডান থেকে দ্বিতীয়), আইবিএফবি সভাপতি হাফিজুর রহমান খান (ডান থেকে তৃতীয়), আইবিএফবি’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী (ডানে), পররাষ্ট্র দপ্তরের বাংলাদেশ বিষয়ক কর্মকর্তা । ছবি সংগৃহীত

গত ৩ অক্টোবর ওয়াশিংটন ডিসিতে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের সঙ্গে এক বৈঠকে আইবিএফবি’র সভাপতি ও রানার গ্রুপ অফ কোম্পানীর চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান খান, প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও খান বাহাদুর গ্রুপের চেয়ারম্যান এবং চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী এ দাবী জানান।

বৈঠকে আইবিএফবি নেতৃবৃন্দ ছাড়াও মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের ব্যবসা ও বাণিজ্য বিষয়ক মুখ্য উপ-সহকারী সেক্রেটারী কুর্ট ডব্লিউ টং, পররাষ্ট্র দপ্তরের বাংলাদেশ বিষয়ক কর্মকর্তা গিলবার্ট মোর্টনসহ পররাষ্ট্র দপ্তরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আইবিএফবি নেতৃবৃন্দ বৈঠকে বলেন, “বাংলাদেশ জিএসপি সুবিধা পুনর্বহালের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের দেওয়া প্রায় সব শর্তই পূরণ করেছে এবং এ কারণে জিএসপি সুবিধা পুনর্বহালের জন্য এটিই উৎকৃষ্ট সময়।”

তারা বলেন, “জিএসপি সুবিধা পনর্বহাল হলে তা যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের মধ্যকার বাণিজ্য ঘাটতি কিছুটা হলেও কমে আসবে; যা পক্ষান্তরে দু’দেশের ব্যবসা ও বাণিজ্যিক সম্পর্কের উন্নয়ন ও সম্প্রসারণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।” এছাড়া আইবিএফবি নেতৃবৃন্দ ওই বৈঠকে বাংলাদেশের বিনিয়োগ পরিবেশ, সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগ (এফডিআই) এবং বিশেষত মার্কিন বহুজাতিক কোম্পানীগুলোর বাংলাদেশে বিনিয়োগের সুযোগ ও সম্ভাবনা প্রভৃতি বিষয়ে আলোচনা করেন।

আইবিএফবি নেতৃবৃন্দ মুখ্য উপ-সহকারী সেক্রেটারী কুর্ট ডব্লিউ টং-কে আগামী বছর ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য আইবিএফবি’র বার্ষিক সাধারণ সভায় অংশগ্রহনের আমন্ত্রণ জানালে তিনি তা সাদরে গ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য যে, আইবিএফবি নেতৃবৃন্দ গত ৬ অক্টোবর এক ব্যবসায়িক সফরে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করেন।

গত ২৮ অক্টোবর আইবিএফবি নেতৃবৃন্দ লস এঞ্জেলেস শহরে “ডিসকোভার গ্লোবাল মার্কেট্স – প্যাসিফিক রিম কনজ্যুমার্স”শীর্ষক এক আন্তর্জাতিক সেমিনারে অংশগ্রহন করেন। পরে তারা টেক্সাসে ইউএস-বাংলাদেশ বিজনেস ফোরাম, রিচার্ডসন চেম্বার অব কমার্স ছাড়াও বিভিন্ন ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ ও সংগঠনের সঙ্গে বৈঠক করেন। এর পরবর্তীতে আইবিএফবি নেতৃবৃন্দ মার্কিন বাণিজ্য দপ্তরের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিবৃন্দের সঙ্গে বৈঠক ছাড়াও আমেরিকান চেম্বার, ইন্টারন্যাশনাল রিপাবলিকান ইনস্টিটিউট (ওজও), সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল প্রাইভেট এন্টারপ্রাইজ (ঈওচঊ), ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালসহ বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠন ও আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন।

এই বিভাগের আরো সংবাদ