ক্ষতিপূরণ পেলেন বাদশাহ ফাহাদের ‘গোপন স্ত্রী’
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » টুকিটাকি

ক্ষতিপূরণ পেলেন বাদশাহ ফাহাদের ‘গোপন স্ত্রী’

প্রয়াত সৌদি বাদশাহ ফাহাদের ‘স্ত্রী’ দাবি করে লন্ডনের হাইকোর্টে মামলা করেছিলেন জানান হার্ব (৬৮) নামে এক ফিলিস্তিনি নারী। মামলা শেষে আড়াই কোটি মার্কিন ডলার ক্ষতিপূরণ পেয়েছেন তিনি।

ওই নারী দাবি করেন, ১৯৬৮ সালে গোপনে তাকে বিয়ে করেছিলেন তৎকালীন সৌদি বাদশাহ ফাহাদ।

Janan Harb

জানান হার্ব নামে এই মহিলা নিজেকে প্রয়াত সৌদি বাদশাহ ফাহাদের স্ত্রী দাবি করে লন্ডনের হাইকোর্টে মামলা করেছিলেন।

তিনি জানান, ফিলিস্তিনের একটি খ্রিস্টান পরিবারে তার জন্ম। বাদশাহ ফাহাদের সঙ্গে বিয়ের আগে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছিলেন তিনি। তবে খ্রিস্টান পরিবারে জন্মের কারণে বাদশাহ ফাহাদের পরিবারের সদস্যরা এই বিয়ে মেনে নেননি।

মামলার নথিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ২০০৫ সালে মৃত্যুর আগে বাদশাহ ফাহাদ গুরুতর অসুস্থ হওয়ার পর তার ছেলে প্রিন্স আবদুল আজিজ লন্ডনের ডরচেস্টার হোটেলে জানান হার্বের সঙ্গে দেখা করেছিলেন। সেসময় প্রিন্স আবদুল আজিজ তাকে আশ্বাস দিয়েছিলেন, রাজপরিবার তার ভরণপোষণের দায়িত্ব নেবে। বাদশাহ ফাহাদের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী প্রিন্স আবদুল আজিজ তাকে ১২ মিলিয়ন ডলার নগদ অর্থ এবং চেলসির দুটি ফ্ল্যাট দেওয়ার কথা বলেছিলেন।

King Fahad

প্রয়াত সৌদি বাদশাহ ফাহাদ।

কিন্তু লন্ডনের হাইকোর্টে পেশ করা লিখিত বিবৃতিতে প্রিন্স আবদুল আজিজ এরকম কোনো প্রতিশ্রুতির কথা স্বীকার করেননি। কিন্তু হাইকোর্ট এই মামলায় জানান হার্বের পক্ষেই রায় দিয়েছেন।

জানান হার্বকে দেড় কোটি ডলার নগদ অর্থ ক্ষতিপূরণ এবং লন্ডনের চেলসিতে দুটি বাড়ির মূল্য বাবদ আরও এক কোটি ডলার দিতে একটি রুশ জারি করেছে লন্ডনের হাইকোর্ট।

এই বিভাগের আরো সংবাদ