রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে পুলিশ-জামায়াত সংঘর্ষ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » অপরাধ ও আইন

রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে পুলিশ-জামায়াত সংঘর্ষ

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী, মিরপুর ও কাফরুলসহ বিভিন্ন স্থানে জামায়াত নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে।

বুধবার সকালে এসব ঘটনায় অন্তত ১৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

Jamat-polish clash_MIrpur

বুধবার সকাল ১০টার দিকে মিরপুরের কাফরুল জামায়াত-শিবির কর্মীরা মিছিল বের করলে লাঠিচার্জ করে ছত্রভঙ্গ করে দেয় পুলিশ। ছবি মহুবার রহমান

জামায়াতের ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী, ২০০৬ সালের ২৮ অক্টোবর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেটে নিহত দলীয় নেতাকর্মীর হত্যার বিচারের দাবিতে বুধবার দেশব্যাপী বিক্ষোভের ডাক দেয় জামায়াতে ইসলামী। এরই অংশ হিসেবে সকাল থেকেই বিভিন্ন স্থানে মিছিলের চেষ্টা করে জামায়াত কর্মীরা।

যাত্রাবাড়ীর ওসি অবনী শঙ্কর কর জানান, বুধবার সকাল ১০টার দিকে জামায়াত-শিবির কর্মীরা যাত্রাবাড়ীর কোনাপাড়া মুরগির ফার্ম এলাকায় মিছিল বের করলে খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে যায়। এ সময় মিছিল থেকে পুলিশের দিকে ঢিল ও ককটেল ছোড়া হলে পুলিশ গুলি ছুড়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

পুলিশ এ সময় ব্যানারসহ তিনজনকে আটক করে বলে জানান অবনী শঙ্কর।

পুলিশের ওয়ারি বিভাগের উপকমিশনার নুরুল ইসলাম বলেন, জামায়াতের ছোড়া ইট-পাটকেলের জবাবে পুলিশ বাধ্য হয়ে শটগান থেকে আটটি গুলি ছুড়েছে। ঘটনাস্থল থেকে ব্যানার ও লাঠিসোঁটা জব্দ করা হয়েছে।

 তিনি জানান, চারটি ককটেলসহ তিনজনকে আটক করা হয়। আটকরা হলেন- সাদ্দাম হোসেন (২৩), তানভিরুল আহসান জুয়েল (১৮) ও মোস্তফা কামাল (৫০)।

 সকাল সোয়া ৯টার দিকে মিরপুরের শেওড়াপাড়ায় মিছিলের চেষ্টা করে জামায়াত-শিবির কর্মীরা। সেখানে পুলিশ লাঠিপেটা করে মিছিলকারীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় এবং ঘটনাস্থল থেকে চারজনকে আটক করে। এ সময় মিছিল থেকে ছোড়া ঢিলে এক পুলিশ সদস্য আহত হন।

এর আগে, বুধবার ভোরে রাজধানীর মিরপুরের দক্ষিণ পীরেরবাগ এলাকায় অভিযান চালিয়ে ককটেলসহ ৮ জামায়াতকর্মীকে আটক করেছে মিরপুর মডেল থানা পুলিশ।

 মিরপুর থানার ওসি ভূইয়া মাহাবুব হোসেন জানান, বুধবার ভোর ৪টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মিরপুরের পীরেরবাগ এলাকার একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে জামায়াতের ৮ নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে বেশ কিছু পোস্টার, ধর্মীয় উস্কানিমূলক বই, পেট্রোল বোমা ও ককটেল উদ্ধার করা হয়েছে।

 আটককৃতরা হলেন- আবুল কাশেম (৫৫), ইদ্রিস খান (২৪), আরিফুর রহমান (২৩), সাজ্জাদুল আলম (২৫), আনোয়ার হোসেন (৩২), নবীর উদ্দিন (৩৭), আবু সাঈদ (৪৫) ও মাহবুব হোসেন (২৮)।

 

এই বিভাগের আরো সংবাদ