মানবতাবিরোধী অপরাধে জামালপুরের ৮ জনের বিচার শুরু
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » অপরাধ ও আইন

মানবতাবিরোধী অপরাধে জামালপুরের ৮ জনের বিচার শুরু

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের পাঁচ অভিযোগে জামালপুরের আট ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

বিচারপতি আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বে তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল আজ সোমবার এ আদেশ দেন।  এর মধ্য দিয়ে একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় এই আট জনের বিচার শুরু হলো।

অভিযোগ গঠন করে ট্রাইব্যুনাল আগামী ১৮ নভেম্বর রাষ্ট্রপক্ষের সূচনা বক্তব্য ও সাক্ষ্য শুরুর জন্য দিন ধার্য করে।

এ মামলার আট আসামি হলেন- অ্যাডভোকেট মো. শামসুল হক ওরফে ‘বদর ভাই’, এস এম ইউসুফ আলী, ইসলামী ব্যাংকের সাবেক পরিচালক শরীফ আহাম্মেদ ওরফে শরীফ হোসেন, মো. আশরাফ হোসেন, মো. আব্দুল মান্নান, মো. আব্দুল বারী, হারুন, মো. আবুল হাশেম, এবং এস এম ইউসুফ আলী।

এদের মধ্যে ৬ জনই পলাতক।

গ্রেপ্তার অ্যাডভোকেট শামসুল ও এস এম ইউসুফ আলীকে অভিযোগ গঠনের জন্য এদিন ট্রাইব্যুনালে হাজির করা হয়। আদালতে দাঁড়িয়ে তারা নিজেদের নির্দোষ দাবি করেন।

আদালতে প্রসিকিউশনের পক্ষে ছিলেন প্রসিকিউটর মোখলেছুর রহমান বাদল, ব্যারিস্টার তুরীন আফরোজ, জাহিদ ইমাম ও  রেজিয়া সুলতানা চমন।

দুই আসামি শামসুল হক ও ইউসুফ আলীর পক্ষে ছিলেন আইনজীবী গাজী এম এইচ তামিম।

এ ছাড়া পলাতক আসামি আশরাফ হোসেন, শরীফ আহমেদ ও আব্দুল মান্নান পক্ষে রাষ্ট্র নিযুক্ত আইনজীবী হলেন আব্দুস সোবহান তরফদার। আর পলাতক আব্দুল বারি, হারুন ও আবুল হাশেম পক্ষে মামলা লড়বেন কতুবউদ্দিন আহমেদ।

চলতিবছর ২৯ এপ্রিল এই আট আসামির বিরুদ্ধে প্রসিকউশনের দাখিল করা আনুষ্ঠানিক অভিযোগ আমলে নেন ট্রাইব্যুনাল। গত ২ মার্চ তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির পর পুলিশ শামসুল ও ইউসুফকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তার শামসুল হক জামালপুর জেলা জামায়াতের সাবেক আমির এবং সিংহজানি স্কুলের সাবেক প্রধান শিক্ষক ইউসুফও একসময় জামায়াতের রাজনীতিতে যুক্ত ছিলেন।

এই দুইজন একাত্তরে রাজাকার বাহিনীতে এবং বাকি ছয়জন আলবদর বাহিনীতে ছিলেন বলে ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থার অভিযোগ।

এই বিভাগের আরো সংবাদ