যুক্তরাষ্ট্রে অনশনে ৪৪ বাংলাদেশি বন্দি
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক

যুক্তরাষ্ট্রে অনশনে ৪৪ বাংলাদেশি বন্দি

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে ইমিগ্রেশন অ্যান্ড কাস্টমস এনফোর্সমেন্টের এল পাসো ডিটেনশন সেন্টারে বন্দি থাকা ৬৪ বাংলাদেশির মধ্যে ৪৪ জন অনশন ধর্মঘট পালন করছেন।

স্ট্যাচু অব লিবার্টি। ছবি সংগৃহীত

স্ট্যাচু অব লিবার্টি। ছবি সংগৃহীত

গত বুধবার সকাল থেকে তারা অনশন করছেন। যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসের অনুমতি দেওয়ার পরিবর্তে বহিষ্কারের নির্দেশ জারির পর তারা এই অনশন শুরু করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অভিবাসীদের অধিকার নিয়ে কর্মরত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘দেশিজ রাইজিং আপ অ্যান্ড মুভিং (ড্রাম)’ এর সংগঠক কাজী ফৌজিয়া।

তিনি বলেন, “ন্যাশনাল লইয়ার্স গিল্ড এবং নো ওয়ান মোর ডিপোর্টেশন নামে দুটি সংস্থার পক্ষ থেকে অনশনরতদের খোঁজ-খবর নেওয়া হচ্ছে।”

মাহবুবুর রহমান নামে এক অনশনরত বাংলাদেশি টেলিফোনে বলেন, অনশনে থাকা শামসুদ্দিন নামে এক বাংলাদেশিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অনশন ভাঙতে অন্যদের বিভিন্ন লোভ-লালসা দেখানো হচ্ছে। তবে ডিপোর্টেশনের নির্দেশ প্রত্যাহার ও এসাইলামের আবেদন মঞ্জুর না হওয়া পর্যন্ত আমরা এই কর্মসূচি চালিয়ে যাব।”

ওই বন্দিশিবিরে ছয় মাসেরও বেশি সময় ধরে রয়েছেন সিলেটের বিয়ানীবাজারের মাহবুব।

তিনি বলেন, “আমাদের সবাই রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনা করেছে। কিন্তু কারো আবেদনই গ্রহণ করা হচ্ছে না। অধিকন্তু যারা বিএনপির কর্মী বা সংগঠক হিসেবে আবেদন করেছে;  তারা সবাই সন্ত্রাসী বলে মন্তব্য করেছেন ইমিগ্রেশন কোর্টের জজ।”

মাহবুব জানান, তারা একেকজন প্রায় ২৫ লাখ টাকা দালালকে দিয়ে বিভিন্ন দুর্গম পথ পাড়ি দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে এসেছেন।

এ ব্যাপারে নিউ ইয়র্কের আইনজবী অশোক কর্মকার বলেন, “বিএনপির কর্মী বা সমর্থকদের ঢালাওভাবে সন্ত্রাসী হিসেবে বিবেচনা বা চিহ্নিত করার অবকাশ নেই। এ মর্মে আদালতে যুক্তি-তর্ক উপস্থাপন করে নিউ জার্সির একটি ইমিগ্রেশন কোর্টের জজ কর্তৃক সেই ভ্রান্ত ধারণার বিরুদ্ধে একটি রুলিং আদায় করতে সক্ষম হয়েছি। তবে টেক্সাস, ক্যালিফোর্নিয়া, আরিজোনা অঙ্গরাজ্যের জজরা সেই রুলিংয়ে পাত্তা দিচ্ছেন না।”

হোমল্যান্ড সিকিউরিটি ডিপার্টমেন্টের ইমিগ্রেশন অ্যান্ড কাস্টমস এনফোর্সমেন্ট বিভাগের মুখপাত্র লেটিসিয়া জামারিপা বলেন, “এল পাসো সেন্টারে অনশন ধর্মঘটের কোনো খবরই আমার কাছে নেই।”

এ পরিপ্রেক্ষিতে কাজী ফৌজিয়া বলেন, “কর্তৃপক্ষ কখনোই এসব স্বীকার করেন না।”

তিনি জানান, শনিবার দুপুরে (বাংলাদেশ সময় রোববার ভোররাতে) ড্রাম এবং ন্যাশনাল লইয়ার্স গিল্ডের যৌথ উদ্যোগে এল পাসো ডিটেনশন সেন্টারের সামনে সংবাদ সম্মেলন হবে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ