কম খরচে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার দ্বার খুলতে চায় গ্রীন ডেল্টা 
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লিড নিউজ
অর্থসূচককে নাসির এ চৌধুরি

কম খরচে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার দ্বার খুলতে চায় গ্রীন ডেল্টা 

বাংলাদেশের সঙ্গে মালয়েশিয়ার বাণিজ্য সম্প্রসারণে রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে আজ থেকে শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী মালয়েশিয়ান পণ্য প্রদর্শনী মেলা ‘৪র্থ শোকেস মালয়েশিয়া-২০১৫’।

বাংলাদেশ-মালয়েশিয়া চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (বিএমসিসিআই) আয়োজিত এ মেলার উদ্বোধন করেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

মেলার ফাঁকে ফাঁকে গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্সের বর্তমান অবস্থা ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে কথা বলেন বিএমসিসিআই প্রেসিডেন্ট ও গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান নাসির এ চৌধুরি।

মেলার ফাঁকে ফাঁকে গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্সের বর্তমান অবস্থা ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে কথা বলেন এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও বিএমসিসিআই প্রেসিডেন্ট নাসির এ চৌধুরি। ছবি মহুবার

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিএমসিসিআই প্রেসিডেন্ট ও গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান নাসির এ চৌধুরি। মেলার ফাঁকে ফাঁকে তার সঙ্গে গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্সের বর্তমান অবস্থা ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে কথা হয় অর্থসূচক প্রতিবেদক এস এম শাফায়াতের সঙ্গে।

অর্থসূচক: বিএমসিসিআই’র আয়োজনে চতুর্থবারের মতো এ ধরনের মেলার আয়োজন করা হয়েছে। আপনি বিএমসিসিআই’র বর্তমান প্রেসিডেন্ট। এ ধরনের মেলা আয়োজনে আপনাদের যে প্রত্যাশা তার কতটুকু পূরণ হয়েছে বলে মনে করেন?

নাসির এ চৌধুরি: আমরা সব সময় চেয়েছি ব্যবসা-বাণিজ্য নিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে মালয়েশিয়ার সহযোগিতাপূর্ণ সম্পর্ক তৈরি করতে। তাছাড়া মালয়েশিয়া বাংলাদেশের দীর্ঘদিনের বিশ্বস্ত বন্ধু রাষ্ট্র ও ব্যবসায়িক পার্টনার। কাজেই মালয়েশিয়া সব সময়ই আমাদের সঙ্গে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখেছে। সে দিক থেকে আমরা সফল বলতেই পারি। তবে বর্তমানে মালয়েশিয়ার বাজারে ১৯টি বাংলাদেশি পণ্য শুল্কমুক্ত সুবিধা পাচ্ছে। এই সুবিধা আরও বাড়াতে পারলে দুদেশের সম্পর্ক আরও এগিয়ে যাবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই।

অর্থসূচক: আপনি গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান। আর গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড এই মেলার অন্যতম পৃষ্ঠপোষক। এ সম্পর্কে কিছু বলুন।

নাসির এ চৌধুরি: গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স একটি মূল প্রতিষ্ঠান; ১৯৮৬ সালে যার যাত্রা শুরু। এখন এর সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠান রয়েছে ৪টি। এগুলো হলো- গ্রীন ডেল্টা সিকিউরিটিজ লিমিটেড, গ্রীন ডেল্টা ক্যাপিটাল লিমিটেড, জিডি-অ্যাসিস্ট ও প্রোফেশনাল অ্যাডভান্সমেন্ট বাংলাদেশ লিমিটেড। এগুলোর মধ্যে মেলায় স্টল দিয়েছি গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড ও জিডি-অ্যাসিস্টের। এই দুটি সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠানের প্রোডাক্ট সম্পর্কে জনগণকে ধারণা দিতেই স্টল দিয়েছি।

অর্থসূচক: গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিডেট বর্তমানে কী ধরনের স্কিম নিয়ে কাজ করছে?

নাসির এ চৌধুরি: গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের মাধ্যমে আমরা বিভিন্ন ধরনের স্কিম নিয়ে কাজ করছি। যেমন- মোটর যান, হোম, ফায়ার, দুর্ঘটনা, ভ্রমণ, এনার্জি, মেরিন, প্রোপার্টি, ক্যাজুয়ালটি ইত্যাদি।

তবে বর্তমানে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে স্কিম নিয়ে কাজ করছি তা হলো- হেলথ স্কিম পলিসি। স্বাস্থ্য সেবা নিয়ে বাংলাদেশে আমরাই প্রথম এই বিমা পলিসির আওতায় দেশ-বিদেশের প্রসিদ্ধ হাসপাতালে চিকিৎসা সহায়তার ব্যবস্থা করছি। এই পলিসির আওতায় বাংলাদেশের ১০টি ও মালয়েশিয়ার ৮০টিরও বেশি হাসপাতালে ১ লাখ থেকে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত ক্যাশলেস (টাকা ছাড়) চিকিৎসা সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। ভিসা প্রসেসিং থেকে শুরু করে ট্রাভেল, ফুড এবং রেসিডেন্স ব্যবস্থাপনাও করা হচ্ছে। ভারত ও থাইল্যান্ডের কিছু হাসপাতালের সঙ্গেও আমরা এ কাজ করছি। হেলথ স্কিম পলিসির মাধ্যমে অল্প খরচে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার দ্বার খুলে দিতে চায় গ্রীন ডেল্টা।

আর এর যাবতীয় ব্যবস্থাপনায় কাজ করছে আমাদের সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠান জিডি-অ্যাসিস্ট লিমিটেড। এজন্য মালয়েশিয়ার সরকার নিয়ন্ত্রিত মালয়েশিয়ান হেলথ কেয়ার কাউন্সিলের (এমএসটিসি) সঙ্গে আমাদের চুক্তি রয়েছে। জিডি-অ্যাসিস্ট লিমিটেডের মাধ্যমে আমরা মূলত এমএসটিসি’র প্রতিনিধিত্ব করছি। ফলে সে দেশের সাধারণ মানুষের কাছ থেকে যে চার্জ নেওয়া হয় আমাদের কাছ থেকেও তাই নেওয়া হচ্ছে। ফলে অত্যন্ত কম খরচে উন্নত চিকিৎসা সম্ভব হচ্ছে।

এছাড়া নারীদের নিরাপত্তা নিয়ে আমাদের আরেকটি স্কিম রয়েছে; নাম ‘নিবেদিতা’। এর মাধ্যমে গ্রাম ও শহরের নারীদের যেকোনো ধরনের দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু বা শারীরিক অক্ষমতা বা বিকলঙ্গতার জন্য বিমা সুবিধা দিয়ে আসছি। পাশাপাশি ধর্ষণ বা দুর্ঘটনাজনিত কারণে মানসিক আঘাতপ্রাপ্ত নারীদের কাউন্সেলিং সুবিধা দিতে বিভিন্ন সংগঠনের সঙ্গে আমরা চুক্তিবদ্ধ হয়ে সেবা দিচ্ছি।

এই বিভাগের আরো সংবাদ