রাজনীতি এখন ব্যবসায়ীদের পকেটে: রাষ্ট্রপতি
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লিড নিউজ

রাজনীতি এখন ব্যবসায়ীদের পকেটে: রাষ্ট্রপতি

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বলেছেন, রাজনীতি এখন ব্যবসায়ীদের পকেটে চলে গেছে। এটি অত্যন্ত দুঃখের বিষয়। যেভাবেই হোক এ অবস্থা থেকে দেশকে মুক্ত করতে হবে।

গতকাল সোমবার বিকেলে কিশোরগঞ্জের অষ্টগ্রাম উপজেলার অষ্টগ্রাম পাইলট উচ্চবিদ্যালয় মাঠে এক নাগরিক সমাবেশে ভাষণে রাষ্ট্রপতি এসব কথা বলেন। রাষ্ট্রপতি হওয়ার কারণে এলাকাবাসীসহ সাধারণ মানুষের সঙ্গে দূরত্ব বেড়ে যাওয়ায় দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি।

Abdul hamid

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। ফাইল ছবি

রাষ্ট্রপতি বলেন, একজন রাজনীতিবিদের সততা না থাকলে তিনি কিছুই করতে পারবেন না। কেউ যদি অর্থ-বিত্ত করতে চান, তাহলে তাদের জন্য অনেক উপায় আছে; রাজনীতিতে আসা উচিত নয়।

তিনি বলেন, আমার রাজনীতি মানুষের কল্যাণে। অবৈধভাবে সরকারি কাজ থেকে একটি লাল পয়সাও পকেটে নিইনি।

তিনি আরও বলেন, আপনারা ইচ্ছে করলেই এখন আর আগের মতো আমার সঙ্গে দেখা করতে পারেন না। কাছে আসতে পারেন না। নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে চলতে হয়। আমাকে বন্দী কইরা রাখা হইছে। আর আপনাদের রাখা হইছে বেড়া দিয়া। সারাজীবন তো আমি রাষ্ট্রপতি থাকব না। সে সময় আবার আপনারা আমার কাছে আসতে পারবেন, আর আমি আপনাদের কাছে যেতে পারব।

হাওর সম্পর্কে আবদুল হামিদ বলেন, দেশের সবচেয়ে অবহেলার স্থান হাওরাঞ্চল। প্রতিনিয়ত প্রকৃতির বিরুদ্ধে লড়াই করে বাঁচতে হয় হাওরবাসীকে। বর্ষায় বড় বড় ঢেউ; নদীভাঙন, ঝড়-তুফান, বন্যাসহ বিভিন্ন প্রতিকূলতার মধ্যে বাস করতে হয়। তাদের যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম নদীপথ। তাই সুবিধাবঞ্চিত হাওর উপজেলা অষ্টগ্রাম, ইটনা ও মিঠামইনের মানুষের জীবনমান উন্নয়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, একসময় হাওরের মানুষকে মৃত্যুর পর কবর দেওয়া যেত না। পানিতে ভাসিয়ে দেওয়া হতো। এখন আর পানির মধ্যে ভাসাতে হয় না। কোটি কোটি টাকা ব্যয়ে স্কুল, কলেজ, এতিমখানা প্রতিষ্ঠাসহ যোগাযোগব্যবস্থার উন্নয়ন হচ্ছে।

রাষ্ট্রপতি বলেন, সাড়ে ৪০০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হবে ইটনা-মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম হাইওয়ে সড়ক। ফলে যোগাযোগের ক্ষেত্রে দ্রুতই স্বপ্নের বাস্তবায়ন হবে। বিদ্যুতের দুর্ভোগ দূর করতে আরও নতুন ৩০০ কিলোমিটার বিদ্যুৎ লাইন স্থাপন করা হবে।

অষ্টগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুল হক হায়দারীর সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য মো. আফজাল হোসেন ও রেজওয়ান আহমেদ, কিশোরগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক মো. জিল্লুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম।

এর আগে ধলেশ্বরী নদীর ওপর প্রায় ৪১ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত ৩৪১ মিটার দীর্ঘ ‘রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ সেতু’ উদ্বোধন করেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ।

এই বিভাগের আরো সংবাদ