অভিবাসন প্রত্যাশী ১০৩ বাংলাদেশিকে আনতে মায়ানমারে বিজিবি
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লিড নিউজ

অভিবাসন প্রত্যাশী ১০৩ বাংলাদেশিকে আনতে মায়ানমারে বিজিবি

সাগরে ভাসমান অভিবাসন প্রত্যাশীদের একাংশ। ফাইল ছবি

সাগরে ভাসমান অভিবাসন প্রত্যাশীদের একাংশ। ফাইল ছবি

অভিবাসন-প্রত্যাশী ১০৩ বাংলাদেশিকে ফিরিয়ে আনতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) ১৮ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল মায়ানমারে পৌঁছেছেন।

আজ সোমবার বিজিবি কক্সবাজারের ১৭ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক (ভারপ্রাপ্ত) মেজর ইমরান উল্লাহ সরকারের নেতৃত্বে  বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের ঘুমধুম পয়েন্ট দিয়ে প্রতিনিধি দলটি মায়ানমারের ঢেকিবুনিয়া বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি) ফাঁড়িতে পৌঁছান।

বৈঠকে পর্যবেক্ষক হিসেবে রয়েছেন বিজিবি কক্সবাজার সেক্টরের কমান্ডার কর্নেল এম আনিসুর রহমান।

বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের প্রধান মেজর ইমরান উল্লাহ সরকার সাংবাদিকদের জানান, ঘুমধুম সীমান্তের বাংলাদেশ-মায়ানমার মৈত্রী সেতুর ওপর দিয়ে তারা হেঁটে মিয়ানমারের ঢেকিবুনিয়া ফাঁড়িতে পৌঁছান। অভিবাসন প্রত্যাশী ১০৩ বাংলাদেশিকে ফিরিয়ে আনতে ওই ফাঁড়িতে তারা মায়ানমার ইমিগ্রেশন অ্যান্ড ন্যাশনাল রেজিস্ট্রেশন ডিপার্টমেন্টের সঙ্গে পতাকা বৈঠকে বসেছেন।

দুপুর একটার দিকে তারা অভিবাসন প্রত্যাশীদের নিয়ে বাংলাদেশ সীমান্তের ঘুমধুম বিজিবি ফাঁড়িতে ফিরে আসতে পারেন। এরপর আইনানুগ কার্যক্রম সম্পন্ন করতে অভিবাসন প্রত্যাশীদের কক্সবাজার জেলা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করবেন।

প্রসঙ্গত, গত ২১ মে সমুদ্রপথে মালয়েশিয়া যাওয়ার সময় মিয়ানমার জলসীমানা থেকে সে দেশের নৌবাহিনী ২০৮ জন এবং ২৯ মে ৭২৭ জন অভিবাসন প্রত্যাশীকে উদ্ধার করে। মায়ানমারের দাবি, উদ্ধার করা ব্যক্তিরা বাংলাদেশের নাগরিক।

মেজর ইমরান জানান, এর আগে বিজিবি পঞ্চম দফায় মিয়ানমার থেকে ৬২৬ জন বাংলাদেশি অভিবাসন প্রত্যাশীকে দেশে ফিরিয়ে আনেন।

এই বিভাগের আরো সংবাদ