মেডিকেলে ভর্তিচ্ছুদের বন্দুকের বাট দিয়ে পেটাল পুলিশ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লিড নিউজ

মেডিকেলে ভর্তিচ্ছুদের বন্দুকের বাট দিয়ে পেটাল পুলিশ

মেডিকেলের ভর্তি পরীক্ষার ফল বাতিল এবং আবারও পরীক্ষা নেওয়ার দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের টানা ১২তম দিন আজ। এই আন্দোলনে আজ বুধবার শিক্ষার্থীদের মারধর করেছে পুলিশ। বন্দুকের বাট দিয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মারধরের অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে। সেইসঙ্গে টেনেহিঁচড়ে এক ছাত্রীর পোশাক ছেঁড়ার অভিযোগও রয়েছে।

Medical Student

রাজধানীর শাহবাগে আন্দোলনরত মেডিকেলে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের ওপর আজ বুধবার হামলা চালিয়েছে পুলিশ। ছবি: মহুবার রহমান

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মেডিকেলের ভর্তি পরীক্ষা বাতিল এবং আবার পরীক্ষার দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা আজ বুধবার সকাল ১০টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি চত্বরে বিক্ষোভ করেন। বেলা ১১টার দিকে মিছিল নিয়ে শাহবাগ মোড়ের দিকে যান তারা। এসময় জাদুঘরের সামনে তাদের বাধা তুলে দেয় পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জাদুঘর পেরিয়ে যাওয়ার পর বন্দুকের বাট দিয়ে তাদের মারধর করে পুলিশ। এসময় টেনেহিঁচড়ে এক ছাত্রীর পোশাক ছিঁড়ে ফেলে। মিছিল থেকে ১০ জনকে আটক করে নিয়ে যায় পুলিশ। অন্য শিক্ষার্থীরা শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নেন। এরপর এক পর্যায়ে পুলিশ গিয়ে প্রায় সবাইকে তাড়িয়ে থানায় নিয়ে যায়।

অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার ইব্রাহীম খান জানান, সকালে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মিছিল থেকে প্রথমে ১০ জনকে আটক করা হয়। পরে শাহবাগ মোড় থেকে অন্য আন্দোলনকারী ধরে শাহবাগ থানায় নেওয়া হয়েছে।

শিক্ষার্থীদের আটকের বিষয়ে রমনা জোনের ডিসি আবদুল বাতেন বলেন, যান চলাচলে বাধার কারণেই তাদের আটক করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, শিক্ষার্থীরা পুলিশের ওপর হামলা চালিয়েছে বলেই তাদেরকে রাইফেলের বাট দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। তবে পুলিশ যদি কোনো বাড়াবাড়ি করে থাকে- তা খতিয়ে দেখা হবে।

প্রসঙ্গত, গত ১৮ সেপ্টেম্বর দেশের সব সরকারি-বেসরকারি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজগুলোতে ভর্তি পরীক্ষা হয়। পরীক্ষার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ ওঠে। দেশের ১০টি জেলায় এনিয়ে বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীরা। সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন।

এই বিভাগের আরো সংবাদ