যশোরে দুর্বৃত্তের গুলিতে নিহত ১
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » জাতীয়

যশোরে দুর্বৃত্তের গুলিতে নিহত ১

যশোর সদর উপজেলার সষ্ণুদার গ্রামের বাজারে এক ব্যক্তিকে প্রকাশ্য দিবালোকে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

আজ বুধবার দুপুর পৌনে ১২টার দিকে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

গুগল মানচিত্রে যশোর

গুগল মানচিত্রে যশোর

নিহত ব্যক্তি হলেন মবজেল মোল্লা (৪৭)। তিনি সদর উপজেলার মালিয়াটি গ্রামের শাহজাহান মোল্লার ছেলে।

পুলিশের দাবি, মবজেল নিষিদ্ধ চরমপন্থী সংগঠন ‘সর্বহারা’র আঞ্চলিক নেতা। তবে তার পরিবার ও জেলা বিএনপির দাবি, তিনি বিএনপির কর্মী।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মবজেল সষ্ণুদার বাজারের একটি চায়ের দোকানের সামনে দাঁড়িয়েছিলেন। এর  ১৫ মিনিট পর তিনটি মোটর সাইকেলে করে নয়জন সন্ত্রাসী সেখানে যায়। মোটরসাইকেল থেকে বোরখা পরা ছয়জন নেমে মবজেলকে ঘিরে প্রথমে মাথায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপ দেয়। পরে বুকে গুলি করে তারা পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই মবজেলের মৃত্যু হয়।

পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

লাশের সুরতহাল প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মবজেলের মাথায় তিনটি কোপের দাগ রয়েছে। বুকে একটি গুলি বিদ্ধ হয়েছে। এছাড়া শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে।

যশোরের সহকারী পুলিশ সুপার (ক সার্কেল) ভাস্কর সাহা বলেন, ‘মবজেল নিষিদ্ধ চরমপন্থী সংগঠন সর্বহারার আঞ্চলিক নেতা ছিলেন। আমাদের কাছে তথ্য রয়েছে, ওই এলাকায় সর্বহারা দলের কর্মীরা আবার সংগঠিত হওয়ার চেষ্টা করছে। এ জন্য ধারণা করা হচ্ছে, নিজেদের মধ্যে দ্বন্দ্বে মবজেলকে হত্যা করা হতে পারে।’ তার দাবি, মবজেলের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি মডেল থানায় তিনটি খুনসহ বিভিন্ন অপরাধে ছয়টি মামলা রয়েছে।

যশোর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাবেরুল হক দাবি করেন, ‘মবজেল বিএনপির কর্মী। ভোটের সময়ে বিএনপির পক্ষে তিনি সক্রিয় ভূমিকা রাখতেন। তিনি কৃষিকাজ করে সাদামাটা জীবনযাপন করতেন।’ কোনো নিষিদ্ধ সংগঠনের সঙ্গে মবজেল জড়িত ছিলেন না।’

এই বিভাগের আরো সংবাদ