দেশে শুদ্ধাচারের বড় অভাব: গভর্নর
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » ব্যাংক-বিমা
ছড়ায় ছড়ায় শুদ্ধাচার বইয়ের মোড়ক উন্মোচন

দেশে শুদ্ধাচারের বড় অভাব: গভর্নর

Shuddhachar-Morok

ছড়ায় ছড়ায় শুদ্ধাচার বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান

শিশুকিশোরদের মনে শুদ্ধাচারের বীজ বপনের উদ্দেশ্যে দেশসেরা ছড়াকারদের লেখা নিয়ে ‘ছড়ায় ছড়ায় শুদ্ধাচার’ নামে অসাধারণ একটি বই প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। আজ সোমবার ব্যাংকের জাহাঙ্গীর আলম মিলনায়তনে বইটির মোড়ক উন্মোচন করা করেন গভর্নর ড. আতিউর রহমান।

Shuddhachar-Governer

ছড়ায় ছড়ায় শুদ্ধাচার বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন গভর্নর ড. আতিউর রহমান। পাশে (ডানে) শিল্পী হাশেম খান, ডেপুটি গভর্নর এসকে সুর চৌধুরী, (বামে) ডেপুটি গভর্নর নাজনীন সুলতানা ও রাজী হাসান

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও ছড়ায় ছড়ায় শুদ্ধাচার বইয়ের সম্পাদক ম. মাহফুজুর রহমানের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, শিল্পী হাশেম খান, রফিকুন নবী এবং দেশের জনপ্রিয় ছড়াকারবৃন্দ।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে গভর্নর বলেন, নৈতিকতা, কর্তব্যনিষ্ঠা ও সততার মধ্য দিয়ে যে আচরণ তাই শুদ্ধাচার। দেশে শুদ্ধাচারের বড় অভাব। তাই সহজেই মানুষ দুর্নীতি, অনিয়মে জড়িয়ে পড়ে। আবার অন্যায়-অবিচার, সন্ত্রাস ও বৈষম্যের শিকার হয়। এমন বাস্তবাবতায়  সরকার জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশলপত্র তৈরি করেছে। এই শুদ্ধাচার কৌশলপত্র বাস্তবায়নে রাষ্ট্রীয় সকল প্রতিষ্ঠানের মতো বাংলাদেশ ব্যাংকেও নৈতিকতা বিষয়ক একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। ডেপুটি গভর্নর নাজনীন সুলতানার নেতৃত্বাধীন এই কমিটির উদ্যোগে “ছড়ায় ছড়ায় শুদ্ধাচার” বইটি প্রকাশ করা হচ্ছে।

Shuddhachar-Editor

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন ছড়ায় ছড়ায় শুদ্ধাচার বইয়ের সম্পাদক ম. মাহফুজুর রহমান

বইটির ছড়াগুলো বাণিজ্যিক ব্যাংকের মাধ্যমে প্রত্যেক এলাকার রাস্তার মোড়ে মোড়ে বিলবোর্ডে ছড়িয়ে দিতে পারলে আমাদের মনোজগতে এর প্রভাব পড়বে বলেও মন্তব্য করেন গভর্নর। এছাড়া ছড়াগুলো দেশব্যাপী ছড়িয়ে দিতে টিভির স্ক্রল, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ফেসবুক ফেইজ, ওয়েবসাইটে প্রকাশে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক মাহফুজুর রহমানকে উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

দেশের পুরো ব্যাংকিং খাতকে আলোর মধ্যে নিয়ে এসেছেন উল্লেখ করে গভর্নর বলেন, অন্ধকারে অসৎ, অশুভ কাজ হয়। তাই শুদ্ধ কাজ করার জন্য আমরা পুরো ব্যাংকটাকে ডিজিটালাইজ করব। তাই ব্যাংক ব্যবস্থাকে আলোতে নিয়ে আসা হচ্ছে। ব্যাংকিং খাতকে ডিজিটালাইজ করে এর স্বচ্ছতা ও জবাবদিহীতা বাড়াতে চায় বাংলাদেশ ব্যাংক। তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, আগামী ২০১৬ সালের মধ্যে সব ব্যাংকগুলো ডিজিটালাইজ হয়ে যাবে।

Shuddhachar-Rafikun-Nabi

শিল্পী ও ছড়াকার রফিকুন নবীর হাতে বই তুলে দিচ্ছেন গভর্নর ড. আতিউর রহমান

অনুষ্ঠানে ডেপুটি গভর্নর আবু হেনা মো. রাজি হাসান বলেন, দুর্নীতি, মানিলন্ডারিং, মুদ্রাপাচার রোধে বাংলাদেশ ব্যাংকের ফিনান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স বিভাগ জনগণকে যে বার্তা দিতে চায়, বিভিন্ন ছড়ার মধ্য দিয়ে সে বার্তাই উঠে এসেছে।

ডেপুটি গভর্নর নাজনীন সুলতানা বলেন, ব্যাংকিং খাতে শুদ্ধাচার নিশ্চিত করতে কাজ করছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এ লক্ষ্যে ব্যাংক ও নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানের জন্য কোড অব কন্ডাক্ট প্রণয়ন করা হচ্ছে।

Shuddhachar-Subal-Bonik

শিশু-কিশোর পত্রিকা সাতরঙের সম্পাদক সুবল কুমার বণিকের বই তুলে দেওয়া হচ্ছে

তিনি বলেন, অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য স্বচ্ছ, সৎ ও উচ্চ নৈতিকতাবোধসম্পন্ন মানুষ প্রয়োজন। সাহিত্য-সংস্কৃতি এ নৈতিকতা তৈরিতে কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে।

Shuddhachar-Kajal

চন্দ্রাবতী একাডেমির নির্বাহী পরিচালক কামরুজ্জামান কাজল গভর্নরের হাত থেকে বই নিচ্ছেন

ডেপুটি গভর্নর শীতাংশু কুমার সুর চৌধুরী বলেন, কালের বিবর্তন, বিশ্বায়ন ইত্যাদি আমাদের নৈতিকতায় চিড় ধরিয়েছে। এসব আমাদের উন্নয়নকে ব্যাহত করছে। অর্থনৈতিক উন্নয়নের প্রয়োজনেই শুদ্ধাচারের প্রসার ঘটাতে হবে। তিনি বলেন,  বিবেকের তাড়না মানুষকে সৎ, শুদ্ধ ও ভালো রাখে। বিবেককে জাগিয়ে তুলতে পারে সাহিত্য, বিশেষ করে ছড়ার রয়েছে অনেক ক্ষমতা।

ছড়াছড়ায় শুদ্ধাচার বইয়ের সম্পাদক ম. মাহফুজুর রহমান বলেন, সাহিত্য মানুষের মনোজগতে বড় প্রভাব ফেলতে পারে। মানুষকে দেশপ্রেম, সততা, অসাম্প্রদায়িকতায় উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে ছড়াছড়ায় শুদ্ধাচার বইটি প্রকাশের উদ্যোগ নেওয়া হয়। এটি শুধু শিশু-কিশোর নয়, সবার মনোজগতে নাড়া দেবে বলেন তিনি বিশ্বাস করেন।

Shuddhachar-Arthosuchak-Editor

অর্থসূচক সম্পাদক জিয়াউর রহমানের হাতে বই তুলে দিচ্ছেন ড. আতিউর রহমান

চিত্রশিল্পী ও ছড়াকার রফিকুন্নবী বলেন, ছড়া দিয়ে কতটুকু শুদ্ধাচার প্রতিষ্ঠা করা যায়, তা আমি জানি না। তবে ষাটের দশকে ছড়াকাররা ছিলেন আলোচিত। ওই সময়ের সকল আন্দোলনে ছড়াকারদের ছড়াগুলো ছিলো সবচেয়ে আলোচিত।

Shuddhachar-Fakhrul-Haroon

ছড়াকার ও প্রথম আলোর সিনিয়র রিপোর্টার ফখরুল ইসলাম হারুনের হাতে বই তুলে দেওয়া হচ্ছে

অনুষ্ঠানে কবি রোকেয়া খাতুন রুবি বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের এ ভিন্নধর্মী আয়োজনে আমাদের মতো কবি ও ছড়াকাররা গর্বিত। তবে এই উদ্যোগ যাতে এখনই শেষ হয়ে না যায়। সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ও অফিসে এ বইটি পৌঁছে দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

ছড়াকার ফারুক হোসেন বলেন, এ ধরনের উদ্যোগের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংককে ধন্যবাদ। এটা বাংলাদেশের জন্য ইতিহাস হয়ে থাকবে।

Shuddhachar-Jajabar-Minto

বই নিচ্ছেন চ্যানেল আইয়ের সিনিয়র রিপোর্টার যাযাবর মিন্টু

‘ছড়ায় ছড়ায় শুদ্ধাচার’ বইটিতে দেশের নামকরা ছড়াকার ও কবিদের ছড়া ছাপানো হয়েছে। বইটির একটি অনন্য বৈশিষ্ট হলো প্রায় প্রতিটি ছড়াই মাত্র চার লাইনে লেখা।ছড়াগুলো শিরোনামহীন।

অনেকটা স্লোগানের মতো। ঘুষ আর দুর্নীতি এবং স্বজনপ্রীতি, আসুন সবাই করি বর্জন। তবেই সফল হবে স্বাধীনতা অর্জন; কালো টাকা ওয়ালা ভালো নয় মোটে, ভালো পথে কভু যায় না।

Shuddhachar-Arif-Nazrul

বই নিচ্ছেন চন্দ্রদ্বীপ প্রকাশনার কর্ণধার ছড়াকার আরিফ নজরুল

ধরা পড়লেই জেলখানা জোটে, ভালোবাসা কারও পায় না; হানাহানি বন্ধে, দূর কর ত্রাস, থাকবে না এই দেশে, কোনো সন্ত্রাস; বাংলামায়ের ডাক, সন্ত্রাসী আর দুর্নীতিবাজ, এবার নিপাত যাক- এ ধরণের নৈতিক মূল্যবোধ সম্পন্ন অর্ধশতাধিক ছড়া রয়েছে বইটিতে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ