পল্লবীতে কিশোরীর অস্বাভাবিক মৃত্যু

মর্গে মরদেহ। ফাইল ছবি

রাজধানীর পল্লবীতে তানিয়া আক্তার (১৬) নামে এক কিশোরীর অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়।

মর্গে মরদেহ। ফাইল ছবি
মর্গে মরদেহ। ফাইল ছবি

পুলিশ জানিয়েছে, তানিয়া আক্তারের গলায় ও শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

তানিয়ার মা রানু আক্তার বলেন, প্রতিদিনের মতো তৈরি পোশাক কারখানায় কাজ শেষে রাত ১০টার দিকে বাসায় ফিরে দেখি, ঘরের দরজায় বাহির থেকে তালা লাগানো। পরে তালা ভেঙে ভেতরে ঢুকে তানিয়ার নিথর দেহ দেখে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

কর্তব্যরত চিকিৎসক জানিয়েছে, ওই কিশোরীর গলায় কালচে দাগ ও শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। আলামত দেখে মনে হচ্ছে, ধর্ষণের পর তাকে হত্যা করা হয়েছে।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের পরিদর্শক মোজাম্মেল হক বলেন, গতকাল শনিবার দিবাগত রাত পৌনে ১টার দিকে ওই কিশোরীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তার মরদেহ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মর্গে রাখা হয়েছে।