অর্জন ধরে রেখেছে রানার: সাকিব
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » অটোমোবাইল

অর্জন ধরে রেখেছে রানার: সাকিব

বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার এবং রানারের ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর সাকিব আল হাসান বলেছেন, উৎপাদিত পণ্য বাজারজাত করার মাধ্যমে অর্জন ধরে রেখেছে রানার অটোমোবাইলস লিমিটেড।

বৃহস্পতিবার ঢাকার মালিবাগে রানারের সপ্তম এক্সক্লুসিভ শো-রুম উদ্বোধন করেন বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার এবং এর ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর সাকিব আল হাসান

বৃহস্পতিবার ঢাকার মালিবাগে রানারের সপ্তম এক্সক্লুসিভ শো-রুম উদ্বোধন করেন বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার এবং এর ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর সাকিব আল হাসান

বৃহস্পতিবার ঢাকার মালিবাগে প্রতিষ্ঠানটির সপ্তম এক্সক্লুসিভ শো-রুম উদ্বোধনকালে তিনি এ কথা বলেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রানার গ্রুপের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান খান, ভাইস চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল শফিকুজ্জামানসহ কোম্পানির উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ।

সাকিব আল হাসান বলেন, আমি দীর্ঘদিন রানার সঙ্গে আছি। আমার এই থাকাটা অনেকটা পারিবারিক। আমি ও রানার বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করি। রানার প্রতিনিধিত্ব করে উৎপাদিত মোটরসাইকেল নিয়ে। আর আমি ক্রিকেট নিয়ে।

তিনি বলেন, রানার প্রতিনিয়ত নতুন পণ্য বাজারজাত করার মাধ্যমে তার অর্জন ধরে রেখেছে। আর আমি এই অর্জনের সঙ্গে থাকতে পেরে গর্বিত।

রানার গ্রুপের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান খান বলেন, গ্রাহকের আরও কাছে যেতেই আমাদের এই উদ্যোগ। গ্রাহক সেবা মানুষের আরও কাছে পৌঁছে দিতে আমরা সর্বাত্মক প্রচেষ্ঠা অব্যাহত  রাখবো।

তিনি বলেন, রানার গ্রুপ গ্রাহক সন্তুষ্টিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে আসছে। ভবিষ্যতেও এটি অবাহত থাকবে। আজ দেশের সব বয়স, শ্রেণি ও পেশার মানুষেরা গর্বের সঙ্গে রানার মোটরসাইকেলে চড়ছে। পণ্যের মান এবং উন্নত গ্রাহক সেবা দেশের প্রত্যেকটি ঘরে রানার তথা দেশি মোটরসাইকেল পৌঁছে দিতে বদ্ধ পরিকর।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, রানার মালিবাগসহ সকল এক্সক্লুসিভ শো-রুম থেকে ডায়াং রানার, ফ্রিডম রানার ও এলএমএল ফ্রিডম মোটরসাইকেল পাওয়া যাবে। এছাড়া এখানে বিক্রয়োত্তর সেবার ব্যবস্থা রয়েছে।

বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় প্রায় দু’শ ডিলার ও সাবডিলার তাদের ৪০০টি বিক্রয় কেন্দ্রের মাধ্যমে রানারের কার্যক্রম চালাচ্ছে। বাংলাদেশের যেকোনো জায়গায় ২৪ ঘণ্টার মাধ্যমে প্রয়োজনীয় যন্ত্রাংশ পৌঁছে দিতে সক্ষম রানারের সার্ভিস সেন্টার।

ভালুকায় ১২৫ বিঘা জমির উপর প্রতিষ্ঠিত রানার অটোবমোবাইলসের কারখানা। এখানে ৫০ সিসি থেকে ১৫০ সিসি পর্যন্ত মোটরসাইকেল উৎপাদিত হচ্ছে। বর্তমানে বাজারে ৫০ ও ৮০ সিসি ক্ষমতার মোটরসাইকেল পাওয়া যাচ্ছে।

অর্থসূচক/জিইউ

এই বিভাগের আরো সংবাদ