২০১৯-২০ অর্থবছরে করদাতার টার্গেট ৪০ লাখ: অর্থমন্ত্রী
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লিড নিউজ

২০১৯-২০ অর্থবছরে করদাতার টার্গেট ৪০ লাখ: অর্থমন্ত্রী

আগামী ২০১৯-২০ অর্থবছরে দেশে করদাতার পরিমাণ ৪০ লাখে উন্নীত করার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

আজ মঙ্গলবার জাতীয় কর দিবস-২০১৫ উপলক্ষে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) আয়োজিত সর্বোচ্চ এবং দীর্ঘমেয়াদী করদাতাদের সম্মাননা সনদ, ক্রেস্ট এবং ট্যাক্স কার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে একথা জানান তিনি।

NBR

আজ মঙ্গলবার জাতীয় কর দিবস-২০১৫ উপলক্ষে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে সর্বোচ্চ এবং দীর্ঘমেয়াদী করদাতাদের সম্মাননা সনদ, ক্রেস্ট এবং ট্যাক্স কার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিরা। ছবি: মহুবার রহমান

অর্থমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশের ১৬ কোটির মধ্যে মাত্র ১১ লাখ মানুষ কর দেয়। যা মোট জনসংখ্যার ১ শতাংশের কম। আগামী ২০১৯-২০ অর্থবছরে দেশে করদাতার পরিমাণ ৪০ লাখে পরিণত করার টার্গেট নিয়েছি আমরা।

তিনি বলেন, অর্থনৈতিক দিক দিয়ে পিছিয়ে থাকা সত্ত্বেও নেপালে আমাদের চেয়ে বেশি করদাতা রয়েছে। তাদের বাজেট আমাদের জাতীয় অনুপাত হিসেবে অনেক বেশি। এই অবস্থা থেকে আমাদের উত্তরণ দরকার।

আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে যদি ১৬ লাখ করদাতা থাকতো তবে বলতে পারতাম, দেশে ১ শতাংশ করদাতা আছে। বর্তমানে আমাদের দেশে করদাতার পরিমাণ ১ শতাংশের নিচে। তবে আমরা এটাকে ২ শতাংশ করতে চাচ্ছি; যদিও এটা উচ্চাভিলাষী টার্গেট। কেননা ১১ লাখ থেকে ৪০ লাখে নিয়ে যাওয়াটা খুবই কষ্টকর হবে। এটা আমাদের জন্য বড় একটা চ্যলেঞ্জ।

অনুষ্ঠানে ২০১৪-১৫ করবর্ষের ভিত্তিতে সর্বোচ্চ ২০ করদাতা ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা সনদ, ক্রেস্ট এবং ট্যাক্স কার্ড প্রদান করা হয়। ব্যক্তিপর্যায়ে সর্বোচ্চ করদাতারা হলেন- ঢাকার আগা নওয়াব দেউড়ীর বাসিন্দা হাজি মো. কাউছ মিয়া, ঢাকা ক্যান্টনমেন্টের বাসিন্দা মোহাম্মদ ইউসুফ, নারায়ণগঞ্জ রূপগঞ্জের গোলাম দস্তগীর গাজী, চট্টগ্রামের পাথরঘাটার মো. নাছির উদ্দিন, ঢাকার গুলশান-১ এর আবদুল মুক্তাদির, ঢাকা ক্যান্টনমেন্টের রুবাইয়াৎ ফারজানা হোসেন, লায়লা হোসেন, হোসনে আরা হোসেন, খাজা তাজমহল এবং ঢাকা উত্তরার বাসিন্দা এম.এ. হায়দার হোসেন।

সর্বোচ্চ করদাতা কোম্পানিগুলো হলো- গুলশানে অবস্থিত শেভরন বাংলাদেশ, কর্ণফুলী ফার্টিলাইজার কোম্পানি লিমিটেড, ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড, বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম এক্সপ্লোরেশন অ্যান্ড প্রডাকশন কোম্পানি, বাপেক্স, তমা কনস্ট্রাকশন অ্যান্ড কোং লিমিটেড, কমার্শিয়াল ব্যাংক অব সিলন পিএলসি , দি সিকিউরিটি প্রিন্টিং কর্পোরেশন বাংলাদেশ লিমিডেট, উত্তরা ফাইনান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড এবং সেন্ট্রাল ডিপোজেটরি বাংলাদেশ লিমিটেড।

অনুষ্ঠানে একইসঙ্গে ৭টি বিভাগীয় শহরের সর্বোচ্চ ও দীর্ঘমেয়াদী হিসেবে ৩৯০ ব্যক্তিকে সম্মাননা দেওয়া হয়।

এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম.এ. মান্নান, এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি আব্দুল মাতলুব আহমেদ প্রমুখ।

এমএইচ/

এই বিভাগের আরো সংবাদ