ব্যাংক কর্মকর্তা হত্যা মামলায় ১ জনের মৃত্যুদণ্ড
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » ব্যাংক-বিমা

ব্যাংক কর্মকর্তা হত্যা মামলায় ১ জনের মৃত্যুদণ্ড

ব্র্যাক ব্যাংকের ঢাকার গুলশান শাখার সাবেক কর্মকর্তা মেহেদী মাসুদ হত্যা মামলায় ১ জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ ছাড়া  ১ জনকে যাবজ্জীবন এবং দুজনকে ৫ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

ছবিটি প্রতীকী

ছবিটি প্রতীকী

আজ সোমবার ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-৪-এর বিচারক আবদুর রহমান সরদার এ রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হলেন আবদুল মজিদ ওরফে ডালিম (৩৪)। তার বাড়ি ঢাকার ধামরাই থানার বালিথা গ্রামে। আর যাবজ্জীবনপ্রাপ্ত জাহাঙ্গীর আলমের (২৬) বাড়ি মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর থানার নয়াডাঙ্গি গ্রামে। আদালত দুজনকেই ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা ও অনাদায়ে ১ বছরের কারাদণ্ড দেন। এ ছাড়া ঈদুল (২৬) ও ফারুক হোসেনকে (২৭) ৫ বছর করে কারাদণ্ড ও ১ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। ঈদুলের বাড়ি কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার গুবদা গ্রামে এবং ফারুকের বাড়ি নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলা ঝুলাপাড়া গ্রামে। আসামিদের মধ্যে ফারুক পলাতক। বাকিরা কারাগারে।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১১ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর বিকেলে পূর্বপরিচিত আব্দুর মজিদ ডালিমের ফোন পেয়ে ব্র্যাক ব্যাংকের গুলশান শাখার সাবেক কর্মকর্তা টিএম মেহেদী মাসুদ তার প্রাইভেটকারে সাভারের জামগড়ায় যান। সেখান থেকে আসামিরা তার গাড়িতে উঠে টাঙ্গাইল নিয়ে যায়। এসময় গলায় গামছা পেঁচিয়ে মেহেদীকে হত্যা করে লাশ শুভুল্যা ব্রিজের নিচে ফেলে দেয়।

পরের দিন ১৭ সেপ্টেম্বর টাঙ্গাইলের মির্জাপুর শুভুল্যা ব্রিজের নিচ থেকে পানিতে ভাসমান লাশ উদ্ধার করে মির্জাপুর থানা পুলিশ।

এ ঘটনায় মির্জাপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) বিমল চন্দ্র পাইন বাদী হয়ে মামলাটি করেন। পরে ২০১৩ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর সিআইডির টাঙ্গাইল জেলার পরিদর্শক জাফর ইকবাল চারজনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আর ২০১৪ সালের ১ সেপ্টেম্বর আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন আদালত।

ই.রা/

এই বিভাগের আরো সংবাদ