পুঁজিবাজার টেনে তুলতে ২৩৬০০ কোটি ডলার দিল চীন
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » পুঁজিবাজার

পুঁজিবাজার টেনে তুলতে ২৩৬০০ কোটি ডলার দিল চীন

চীনের নিম্মমুখী পুঁজিবাজারকে টেনে তোলার চেষ্টায় ২৩ হাজার ৬০০ কোটি ডলার খরচ করেছে দেশটির সরকার। গোল্ডম্যান স্যাকসের বিশ্লেষণে এ তথ্য উঠে এসেছে বলে জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্য সিএনএন।

প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, শুধু আগস্টেই দেশটির সরকার বেলআউট বাবদ ব্যয় করেছে ৯ হাজার ৪০০ কোটি ডলার। ওয়াল স্ট্রিটের ব্যাংকটির দাবি, জুনের মাঝামাঝি সময় থেকে বেইজিংয়ের ব্যয় দেশের সব পুঁজিবাজার ভ্যালুর ৩.৫ শতাংশের সমান।

চীনের একটি পুঁজিবাজারের চিত্র। ছবিটি সম্প্রতি তোলা।

চীনের একটি পুঁজিবাজারের চিত্র। ছবিটি সম্প্রতি তোলা।

চীন সরকার যে দেশটির পুঁজিবাজার নিয়ে গভীরভাবে উদ্বিগ্ন তা প্রকাশ পেয়েছে এই বিপুল অংকের ব্যয়ের মাধ্যমে। অনেকেই সরকারের এই পদক্ষপকে অহেতুক বলে সমালোচেনা করেছেন।

সিএনএন জানিয়েছে, চীনের পুঁজিবাজারে সঙ্কটের প্রাথমিক লক্ষণগুলো দেখা দেয় গত জুন মাসে। যখন সাংহাইয়ের কম্পোজিট সূচক ৫১০০ পয়েন্ট ছাড়িয়ে যায়; যা ছিল বিগত ১২ মাসের তুলনায় ১৫০ শতাংশ বেশি। কিন্তু বাজারের এই উল্লম্ফন বেশিদিন স্থায়ী হয়নি। মাত্র ১৮ কার্যদিবসে সূচকের মূল্য পড়ে যায় ৩২ শতাংশ।

এমন পরিস্থিতিতে শক্ত অবস্থান নেয় সরকার। পুঁজিবাজারে স্থিতিশীলতা ফেরাতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক ৯ মাসের মধ্যে ৫ বার সুদের হার কমায়। বাজার নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষও নতুন শেয়ার তালিকাভুক্তি বন্ধের পাশাপাশি বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়।

প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, চীনের পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা চায়না সিকিউরিটিজ রেগুলেটরি কমিশন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নগদ সরবরাহের মাধ্যমে শেয়ার ক্রয়ের ব্যবস্থা করে দেয়। এসময় সরকারের নির্দেশেই তথাকথিত রাষ্ট্র পরিচালিত ‘ন্যাশনাল টিম’ বেশিরভাগ শেয়ার কেনে ।

তবে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের দফায় দফায় সুদের হার কমানো এবং সরকারের সমর্থনপুষ্ট বিনিয়োগকারী, ব্রোকারেজ হাউজ ও ফান্ডের গ্রুপ ‘ন্যাশনাল টিমের’ ওই সমন্বিত পদক্ষেপে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের আস্থা ফিরছে কি না- তা এখনও পরিষ্কার নয়।

কয়েক সপ্তাহ শান্ত থাকার পর গত আগস্টের শেষদিকে আবারও পড়তে শুরু করে সাংহাই কম্পোজিট সূচক। জুনের মাঝামাঝি সূচকের যে ভ্যালু ছিল এখন তা ৪০ শতাংশের বেশি পড়ে গেছে।

এমন পরিস্থিতিতে অনেকেই দুশ্চিন্তায় আছেন, সরকার সরে গেলে কী হবে পুঁজিবাজারের। তবে গতকাল ও আজ দেশটির পুঁজিবাজারে ইতিবাচক ধারা দেখা গিয়েছে।

সিএনএনের আরেক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, অর্থনীতি শক্তিশালী করতে সরকার আরও পদক্ষেপের কথা বিবেচনা করছে- এমন ইঙ্গিতে টানা দুই দিন সাংহাই কম্পোজিটের সূচক বেড়েছে। আজ বুধবার সূচক বেড়েছে ২.৩ শতাংশ।

প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ চীনের অর্থনীতির স্লথ গতি নিয়ে বিনিয়োগকারীদের মধ্য সৃষ্ট উদ্বেগ কাটতে শুরু করেছে। আর এর ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে বিশ্ব পুঁজিবাজারে।

অর্থসূচক/শাহীন

এই বিভাগের আরো সংবাদ