সরকারের চেয়ে বেশি জনপ্রিয় শেখ হাসিনা
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লিড নিউজ

সরকারের চেয়ে বেশি জনপ্রিয় শেখ হাসিনা

পাঁচ জানুয়ারীর নির্বাচন নিয়ে বিভক্তি থাকলেও বাংলাদেশের বেশিরভাগ মানুষের আওয়ামী লীগ ও শেখ হাসিনার প্রতি সমর্থন বাড়ছে। আওয়ামী লীগ সরকারের প্রতি ৬৬ শতাংশ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি সমর্থন পৌঁছেছে ৬৭ শতাংশে। সে হিসেবে সরকারের চেয়ে এককভাবে শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তা বেশি।

Bangladesh Prime Minister Sheikh Hasina

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। ফাইল ছবি

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক ইন্টারন্যাশনাল রিপাবলিকান ইনস্টিটিউট (আইআরআই) নামের একটি সংস্থার এক মতামত জরিপে এই তথ্য উঠে এসেছে।

গত বুধবার এই জরিপের ফল প্রকাশ করা হয়। বাংলাদেশের মানুষের সঙ্গে মুখোমুখি কথা বলে এই জরিপ কাজ চালানো হয়েছে। দৈবচয়ন পদ্ধতিতে চলতি বছরের ২৩ মে থেকে ১০ জুন পর্যন্ত ২ হাজার ৫৫০ জন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষকে এই জরিপের আওতায় আনা হয়।

জরিপে শতকরা ৬২ শতাংশ বিশ্বাস করেন, দেশের নেতৃত্ব সঠিকভাবেই চলছে। এর আগের জরিপে বলা হয়েছিল, শতকরা ৫৬ শতাংশ জনগণ মনে করে দেশের নেতৃত্ব সঠিকভাবেই চলছে। এবারের জরিপে বেড়েছে ৬ শতাংশ। আর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তা বেড়ে দাড়িয়েছে ৬৭ শতাংশ। অর্থাৎ সরকারের চেয়ে প্রধানমন্ত্রী হাসিনা বেশি জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন।

জরিপের শতকরা ৭২ শতাংশ মনে করেন, দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা ইতিবাচক। ৬৮ শতাংশ মনে করেন, সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থাও ভালো। রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ইতিবাচক বলে মনে করেন ৬৪ শতাংশ।

জরিপে দেখা গেছে, দেশের বর্তমান অর্থনৈতিক পরিস্থিতি এবং দেশের ভবিষ্যত্ সম্পর্কে বাংলাদেশের মানুষ আশাবাদী। কিন্তু তারা সবচেয়ে বেশি উদ্বেগ প্রকাশ করেছে দুর্নীতি নিয়ে। আর জরিপে নির্বাচন নিয়ে বিভক্তি স্পষ্ট। শতকরা ৪৩ জন মনে করেন দ্রুত আরেকটি নির্বাচন হওয়া উচিত। অন্যদিকে, ৪০ শতাংশ মনে করেন আর ঝামেলায় না গিয়ে বর্তমান সংসদের মেয়াদ শেষ করেই পরবর্তী নির্বাচন দেয়া উচিত।

এর আগে ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরে আইআরআইর জরিপে দেখা গিয়েছিল যে, ৪০ শতাংশ চান অবিলম্বে জাতীয় সংসদ নির্বাচন হোক। অন্যদিকে ৪৫ শতাংশ চান বর্তমান সরকার তার মেয়াদ পূর্ণ করুক। ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দেড় বছর পার হয়েছে। আগামী জাতীয় নির্বাচন প্রসঙ্গে উত্তরদাতারা দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েন।

দুর্নীতি ও নিরাপত্তা প্রশ্নে জরিপে অংশ নেওয়া ২৪ শতাংশ মনে করেন এ দেশের প্রধান সমস্যা দুর্নীতি, ১৬ শতাংশের মতে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা এবং ১৫ শতাংশ মনে করেন নিরাপত্তাহীনতা। আর ১১ শতাংশ বলেছেন তারা ঘুষ দিয়েছেন। তাদের প্রায় অর্ধেকেরও বেশি বলেছেন, তারা অন্তত ৫ হাজার টাকা (প্রায় ৬৫ ডলার) ঘুষ দিয়েছেন।

 ই.রা/

এই বিভাগের আরো সংবাদ