টানা ৩ শুনানিতে অনুপস্থিত খালেদা জিয়া
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লিড নিউজ

টানা ৩ শুনানিতে অনুপস্থিত খালেদা জিয়া

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় হাজিরা দিতে আজ বৃহস্পতিবারও আদালতে যাননি বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। তার অনুপস্থিতিতেই তিনজন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়েছে। সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে মামলার পরবর্তী শুনানির তারিখ আগামী ১০ সেপ্টেম্বর ধার্য করেছেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩ এর বিচারক আবু আহমেদ জমাদার। এনিয়ে খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতে টানা তিন দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হলো।

বকশিবাজারের বিশেষ আদালতে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। ফাইল ছবি

বকশিবাজারের বিশেষ আদালতে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। ফাইল ছবি

বকশীবাজারের আলিয়া মাদ্রাসাসংলগ্ন মাঠে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালতের অস্থায়ী এজলাসে এই মামলার পাশাপাশি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলারও কার্যক্রম চলছে।

শুনানিতে খালেদা জিয়া হাজির না হওয়ায় আদালতে সময়ের আবেদন করেন আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া। তিনি বলেন, শারিরীকভাবে অসুস্থ হওয়ায় বিএনপি চেয়ারপার্সন আদালত হাজির হতে পারেননি।

আজ সাক্ষ্য প্রদানকারী তিনজন হলেন- পূবালী ব্যাংকের বৈদেশিক বাণিজ্য শাখার সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার এইচ.এম. ইসমাইল, জনতা ব্যাংকের ঢাকা অফিসের উপব্যবস্থাপক মো. মকবুল আহমেদ ও জনতা ব্যাংকের সাত মসজিদ রোড শাখার প্রথম সহকারী মহাব্যবস্থাপক (এজিএম) ফাহমিদা রহমান। এখন পর্যন্ত চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় সাতজন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার ওই তিনজনের সাক্ষ্যগ্রহণের আগে এই মামলার আসামি জিয়াউল ইসলাম মুন্নার পক্ষে তার আইনজীবী আমিনুল ইসলাম মামলার দুজন সাক্ষী ইনসান উদ্দিন ও মো. শাহজাহানকে জেরা করেন।

শুনানি শেষে খালেদা জিয়ার আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন অভিযোগ করেন, দ্রুততার সঙ্গে এই মামলার কার্যক্রম শেষ করার চেষ্টা হচ্ছে।

২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট এবং ২০১০ সালের ৮ আগস্ট তেজগাঁও থানায় জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট-সংক্রান্ত দুর্নীতি মামলা করে দুদক। ২০১৪ সালের ১৯ মার্চ ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩ মামলা দুটির অভিযোগ গঠন করেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে তিন কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা লেনদেনের অভিযোগ এনে দুদক খালেদা জিয়াসহ চারজনের বিরুদ্ধে ২০১১ সালের ৮ আগস্ট তেজগাঁও থানায় মামলা করে। এ মামলায় ২০১২ সালের ১৬ জানুয়ারি অভিযোগপত্র দাখিল করে দুদক।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৪৩ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় অপর মামলাটি করে দুদক। এ মামলায় ২০০৯ সালের ৫ আগস্ট আদালতে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়।

এই বিভাগের আরো সংবাদ