ইন্টারনেট সপ্তাহ শুরু ৫ সেপ্টেম্বর
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » টেক

ইন্টারনেট সপ্তাহ শুরু ৫ সেপ্টেম্বর

Bangladesh Internet Week logo

বাংলাদশ ইন্টারনেট সপ্তাহের লোগো

সারাদেশে ইন্টারনেট অন্তর্ভূক্তি বাড়াতে এবং দেশীয় ইন্টারনেটভিত্তিক পণ্য ও সেবার প্রসারে আগামী ৫ থেকে ১১ সেপ্টেম্বর শুরু হচ্ছে ‘বাংলাদেশ ইন্টারনেট সপ্তাহ-২০১৫।’

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরেমশন সার্ভিসেস (বেসিস), তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ এবং গ্রামীণফোনের যৌথ আয়োজনে ঢাকা, রাজশাহী, সিলেটে বড় তিনটি এক্সপোসহ দেশের ৪৮৭টি উপজেলায় একযোগে পালিত হবে দেশের সর্ববৃহৎ এই ইন্টারনেট উৎসব। এতে দেশের শীর্ষস্থানীয় ই-কমার্স কম্পানি, মোবাইল অ্যাপস ডেভেলপমেন্ট প্রতিষ্ঠান, ওয়েব পোর্টাল, ডিভাইস কোম্পানিসহ ইন্টারনেটভিত্তিক পণ্য ও সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান অংশ নেবে। থাকবে নানা আয়োজন।

সফলভাবে এই মেলা আয়োজনে প্রতিটি উপজেলা আইসিটি ফোকাল পার্সনের দক্ষতা বাড়াতে রাজধানীর কাকরাইলে ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে রোববার অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘ইন্টারনেট লিডারশীপ ওয়ার্কশপ।’

দেশের তৃণমূল থেকে আসা ভবিষ্যতের এই ডিজিটাল উদ্যোক্তাদের মহা সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

এছাড়া তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার, বেসিসের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রাসেল টি আহমেদ ও গ্রামীণফোনের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা ইয়াসির আজমানসহ অনুষ্ঠানে বেসিসের কার্যনির্বাহী কমিটি, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ এবং গ্রামীণফোনের কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকবেন।

এ প্রসঙ্গে বেসিসের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এবং বাংলাদেশ ইন্টারনেট ইউকের আহ্বায়ক রাসেল টি আহমেদ বলেন, ‘ইন্টারনেটের প্রচার, প্রসার ও এর সুফলগুলো সাধারণ মানুষের সামনে তুলে ধরতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে দেশের সর্ববৃহৎ ইন্টারনেট উৎসব। তৃণমূলে এই আয়োজন সফল করে তুলতে প্রতিটি উপজেলা থেকে একজন আইসিটি ফোকাল পারসনকে নিয়ে দিনব্যাপী এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে। ইন্টারনেট সপ্তাহে ১০ লাখ নতুন ইন্টারনেট গ্রাহক তৈরির লক্ষমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, বেসিসের ওয়ান বাংলাদেশ ভিশনের অন্যতম বছরে এক কোটি ইন্টারনেট ব্যবহারকারী তৈরিতেও এই উদ্যোগ গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করবে। এছাড়া ডিজিটাল মেলা ও ইন্টারনেট উইক একইসাথে নিজ নিজ উপজেলায় কিভাবে সফলভাবে পালন করা হবে তার জন্য এই কর্মশালার মাধ্যমে অংশগ্রহণকারীদের দক্ষ কমিউনিটি ইন্টারনেট লিডার হিসেবে গড়ে তোলার চেষ্টা থাকবে।

 আগামী ৫ থেকে ৭ সেপ্টেম্বর রাজধানীর বনানী মাঠে, ৯ সেপ্টেম্বর রাজশাহীর নানকিন বাজারে ও ১১ সেপ্টেম্বর সিলেটের সিটি ইনডোর স্টেডিয়ামে বৃহৎ পরিসরে বাংলাদেশ ইন্টারনেট উইক আয়োজন করা হবে। এছাড়া ৫ থেকে ১১ সেপ্টেম্বর দেশের ৪৮৭টি উপজেলায় সকল ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের অংশগ্রহণে একযোগে এই উৎসব পালন করা হবে।

বাংলাদেশ ইন্টারনেট উইকের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট www.bangladeshinternet.org ও ফেসবুক পেজ www.facebook.com/BDInternetWeek থেকে এই উৎসব সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাবে।

সূত্র: বিজ্ঞপ্তি

এই বিভাগের আরো সংবাদ