অবশেষে বাড়ির পথে সুরাইয়া
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » জাতীয়

অবশেষে বাড়ির পথে সুরাইয়া

মায়ের পেটে গুলিবিদ্ধ শিশু সুরাইয়া অবশেষে বাড়ির পথে। আজ বৃহস্পতিবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ছেড়েছে শিশুটি। স্বাস্থ্যমন্ত্রী মো. নাসিম হাসপাতালে গিয়ে সুরাইয়ার বাবা বাচ্চু ভূইয়ার হাতে হাসপাতাল থেকে তার বাড়িতে ফেরার ছাড়পত্র তুলে দেন।

হাসপাতাল ছাড়ল মায়ের পেটে গুলিবিদ্ধ শিশু সুরাইয়া। ছবি: মহুব্বর রহমান

হাসপাতাল ছাড়ল মায়ের পেটে গুলিবিদ্ধ শিশু সুরাইয়া। ছবি: মহুব্বর রহমান

দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ একটি বিদায় সংবর্ধনার আয়োজন করে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মিজানুর রহমান বলেন, ‘শিশুটি বাড়ি যাওয়ার মতো সুস্থ হয়ে উঠেছে। তবে তার চোখে এখনো কিছু সমস্যা রয়ে গেছে। এ জন্য তাকে ফলো-আপে থাকতে হবে। মাগুরায় শিশু চিকিৎসক রয়েছে। কোনো সমস্যা হলে সুরাইয়া সেখানে চিকিৎসা পাবে।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে উদ্ধৃত করে তিনি বলেন, সুরাইয়ার চিকিৎসক হওয়া পর্যন্ত সব দায়িত্ব সরকার নেবে। এসময় শিশুটি ও তার পরিবারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার বিষয়টি সরকারের মাথায় আছে বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

নবজাতক বিভাগের প্রধান আবিদ হোসেন মোল্লা জানান, ‘সময়ের আগে কম ওজন নিয়ে জন্মানো শিশুটি আজ তার জন্ম ওজন ছাড়িয়েছে। শিশুটি দুই কেজি ওজন নিয়ে জন্মেছিল। পরে তার ওজন কমে ১৮০০ গ্রাম হয়। আজ আমরা তার ওজন পেয়েছি ২১০০ গ্রাম।’

শিশুটির মা নাজমা বেগম বলেন, ‘আমি কোনো দিন ভাবতে পারিনি বাবুটাকে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে পারব। সবাই আমার বাবুটারে ভালোবাসিছে। আপনারা দোয়া করবেন।’ তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান।

প্রসঙ্গত, গত ২৩ জুলাই মাগুরার দোয়ারপাড়ায় ছাত্রলীগের দুপক্ষের সংঘর্ষে অন্তঃসত্ত্বা নাজমা বেগম গুলিবিদ্ধ হন। ওই দিনই প্রায় সাড়ে চার ঘণ্টা অস্ত্রোপচারের পর নাজমা বেগম মাগুরা সদর হাসপাতালে একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। দুদিন পর শিশুটিকে নিয়ে তার দুই ফুপু ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পৌঁছান। শিশুটির পিঠ দিয়ে গুলি ঢুকে বুক দিয়ে বেরিয়ে যায়। ঢাকা মেডিকেল কলেজে শিশুটির অস্ত্রোপচার হয়। নিবিড় পরিচর্যায় ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে ওঠে শিশুটি।

 

এই বিভাগের আরো সংবাদ