সিএসআরে নামছে বিএসইসি
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » পুঁজিবাজার

সিএসআরে নামছে বিএসইসি

জাতীয় দুর্যোগ, কমিশনের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সন্তানদের শিক্ষা বৃত্তি, দুরারোগ্য রোগের আক্রান্ত হলে আর্থিক সহায়তা দেওয়াসহ সাতটি খাতকে প্রাধান্য দিয়ে সিএসআর নীতিমালা প্রণয়ন করছে বিএসইসি। বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) সামাজিক দায়বদ্ধতার অংশ হিসাবে এ কাজ করবে। আর এ জন্য সিএসআর নীতিমালার খসড়াও প্রস্তুত করেছে সংস্থটি। বিএসইসি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

Flood-1

বন্যা

জানা গেছে, এ সংক্রান্ত নীতিমালা প্রস্তুত করার জন্য সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক মো: আনোয়ারুল ইসলামকে আহ্বায়ক ও উপ-পরিচালক আবুল কালাম আজাদকে সদস্য সচিব করে পাঁচ সদস্যের কমিটি করা হয়েছে। এ কমিটির অপর সদস্যরা হলেন- পরিচালক মো: আবুল কালাম, মোহাম্মদ আবুল হাসান ও মোহাম্মদ রেজাউল করিম। খুব শিগগির তারা খসড়া নীতিমালা কমিশনের কাছে জমা দিবেন। এরপর কমিশন প্রয়োজনে এটিকে পরিবর্তন, পরিমার্জন, সংশোধন করে চুড়ান্ত অনুমোদন দিবে।

জানা গেছে, চাইলেই সিএসআর তহবিল থেকে কোনো কর্মকর্তা বা প্রতিষ্ঠান আবেদন করলেই টাকা পাবেন না।এ আবেদন যাচাই-বাছাই করার জন্য আলাদা কমিটি থাকবে।ওই কমিটি আবেদন মঞ্জুর করলেই টাকা ছাড় হবে।কমিশন সময়ে সময়ে আদেশ দিয়ে এ কমিটি গঠন করবে।

সূত্র মতে, আবেদন যাচাই-বাছাই কমিটির প্রধান থাকবেন ১ জন কমিশনার। কমিটির সদস্য সচিব হিসাবে থাকবেন ১ জন সহকারী পরিচালক। এছাড়াও ১ জন নির্বাহী পরিচালক ও ১ জন উপ-পরিচালক সদস্য হিসাবে থাকবেন।

খসড়া নীতিমালায় সাতটি খাতে সহায়তা সুপারিশ করা হয়েছে। সুপারিশ করা খাতগুলো হলো-সরকার কর্তৃক কোন জাতীয় দুর্যোগ অথবা অন্য কোন তহবিলে যাহায্য করা। কমিশনের কর্মকর্তা ও কর্মচারীর সন্তানদের জন্য মাসিক শিক্ষা, বাৎসরিক ফলাফলের ভিত্তিতে বিশেষ শিক্ষাবৃত্তি ও টিকা প্রদান। কমিশনের কর্মকর্তা ও কর্মচারীর পোষ্য মারা গেলে লাশ পরিবহন ও দাফন বা সৎকার সংক্রান্ত খাতে আর্থিক অনুদান দেওয়া। কমিশনের কোন কর্মকর্তা ও কর্মচারী বা তার কোন পোষ্য দুরারোগ্য আক্রান্ত হলে তাদের চিকিৎসা ব্যয় ভার বহনে অক্ষম বা অসহায় হলে বিএসইসি চিকিৎসা সুবিধা সংক্রান্ত নীতিমালা, ২০১৪ প্রাপ্ত পুণর্ভরণ সহায়তার অতিরিক্ত ব্যয় অনুদান হিসাবে দেওয়া। কমিশনের কর্মকর্তা ও কর্মচারীর বেনোভোলেন্ট ফান্ডে অনুদান দেওয়া। কমিশনের কর্মকর্তা ও কর্মচারীর পরিবার যদি প্রাকৃতিক দূর্যোগে কোন ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখীন হয়, তাহলে অনুদান দেওয়া এবং কমিশন কর্তৃক অনুমোদিত অন্যান্য খাতে সিএসআরের টাকা ব্যবহার করা যাবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএসইসির এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা অর্থসূচককে বলেন, বিএসইসির সামাজিক দায়বদ্ধতা হিসেবে এ কাজটি করতে যাচ্ছে। তবে নীতিমালাটি এখনো চুড়ান্ত হয়নি। খুব শিগগির এটি কমিশন এটি চুড়ান্ত করবে।

অর্থসূচক/

এই বিভাগের আরো সংবাদ