অনিয়মিত ঘুমে ক্যান্সার ঝুঁকি!
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লাইফস্টাইল

অনিয়মিত ঘুমে ক্যান্সার ঝুঁকি!

অনিয়মিত বা কম ঘুমে ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ে। ক্যান্সারের বৃদ্ধিকেও ত্বরান্বিত করে নিদ্রাহীনতা। গবেষকদের দাবি, মাত্র চার সপ্তাহের ঘুমের সমস্যাই চোখে পড়ার মতো পার্থক্য তৈরি করে। সম্প্রতি বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

ছবি সংগৃহীত

ছবি সংগৃহীত

প্রতিবেদনে বলা হয়, গবেষকরা ইঁদুরের উপর পরীক্ষা চালিয়ে দেখেছেন, কম ঘুমে ক্যান্সারের ঝুঁকি রয়েছে। এই পরিস্থিতি রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে ক্ষতিগ্রস্ত করে। ফলে শরীরে ক্যান্সারের প্রাথমিক স্তরের সঙ্গে লড়াইয়ের সক্ষমতা হারায়।

গবেষকরা বলেছেন, যেসব নারী দিনে ছয় ঘণ্টার কম ঘুমান তাদের স্তন ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়। কারণ স্বল্প ঘুম মেলাটোনিন হরমোন উৎপাদনে বিঘ্ন সৃষ্টি করে। এই হরমোন স্তনে টিউমার হওয়ার পথে বাধার সৃষ্টি করে। কিন্তু স্বল্প ঘুমের ফলে স্তনে টিউমার হওয়ার পথ সুগম হয় এবং ক্যান্সারের ঝুঁকি বেড়ে যায়। কাজেই যেসব নারীর ঘুম দিনে ছয় ঘন্টার কম হয়, তাদের এখনই সতর্ক হওয়া উচিত।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গবেষকরা জিন প্রকৌশলের মাধ্যমে জন্মানো এক দল ইঁদুরের শরীরে টিউমারের কোন ইঞ্জেক্ট করে এ পরীক্ষা চালান। দিনের বেলা ইঁদুরগুলো ঘুমানোর সঙ্গে সঙ্গেই তাদের পাশে কৃত্রিম শব্দ তৈরি করা হয়। এতে দেখা যায়, শব্দে কয়েকটি ইঁদুরের ঘুম ভেঙে গিয়েছে। পরে অবশ্য তারা আবার ঘুমিয়েছে। অন্যদিকে কিছু ইঁদুরের ঘুম একেবারেই ভাঙেনি।

ক্যান্সার রিসার্চ সাময়িকীতে প্রকাশিত এই গবেষণায় বলা হয়, শব্দের কারণে যেসব ইঁদুরের ঘুম ভেঙেছে, তাদের শরীরের টিউমারের বৃদ্ধি দ্রুত হয়েছে। মাত্র চার সপ্তাহের মধ্যেই তাদের শরীরের পরিবর্তন দৃষ্টিগোচর হয়। অন্যদিকে যেসব ইঁদুর নির্বিঘ্নে ঘুমিয়েছে, তাদের মধ্যে কোনো পরিবর্তন আসেনি।

এই বিভাগের আরো সংবাদ