বাড্ডায় ভস্মীভূত শতাধিক বস্তিঘর
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লিড নিউজ

বাড্ডায় ভস্মীভূত শতাধিক বস্তিঘর

রাজধানীর মধ্য বাড্ডার আলাতুন্নেছা এলাকায় আগুন লেগে ঝিলের ওপর গড়ে উঠা বস্তিতে খুঁটি পুঁতে গড়ে তোলা শতাধিক টংঘর ভস্মীভূত হয়েছে। একই সঙ্গে এই এলাকার একটি মেসবাড়ি, একটি ভবনে থাকা কয়েকটি দোকানও ভস্মীভূত হয়েছে।

SAMSUNG CAMERA PICTURES

বস্তিটির পাশে বেশ কয়েকটি বসত বাড়িতেও আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

ফায়ার ব্রিগেড কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষের পরিদর্শক মোহাম্মদ সাংবাদিকদের জানান, সোমবার বেলা সাড়ে ১২টা মিনিটে ব্যাংক এশিয়া ও সিডিসিএল সিএনজি স্টেশনের পাশের গলিতে মধ্যবাড্ডা পুস্কনিপাড়ে আগুনের সূত্রপাত হয়।

ফায়ার ব্রিগেডের ১৬টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে বেলা সোয়া ২টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

সিডিসিএল সিএনজি স্টেশন থেকে আনুমানিক পঞ্চাশ গজ গলির ভেতরে ভাই ভাই বোর্ডিং হাউজ নামে দোতলা টিনের ঘর। তার বাঁ দিকে একটি দোতলা মেসবাড়ি এবং ডান দিকে দোতলা ভবনের নিচতলায় কয়েকটি দোকান ও উপরে বোর্ডিংয়ের বর্ধিতাংশ। আর বোর্ডিংয়ের পেছনে ঝিলের ওপর খুঁটির মাচায় পাঁচটি দোতলা কাঠামোতে শতাধিক টিনের ঘর। আগুনে প্রায় সবই পুড়ে গেছে।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের পরিচালক (অপারেশনস) মেজর এ কে এম শাকিল নেওয়াজ বলেন, আমরা এখনও নিশ্চিত নই কীভাবে আগুন লেগেছে। ঘটনা তদন্তে একটি কমিটি করা
হবে। এখনও কোনো মিসিং বা ডেডবডি পাওয়া যায়নি।

কয়েক বিঘা জমির ওপর গড়ে তোলা এসব স্থাপনার মালিক ২১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ওসমান গণি।

ওসমান গণির ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত বাড্ডা থানা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান বলেন, টং ঘরগুলোতে দেড় শতাধিক পরিবার ভাড়া থাকতেন। ঈদে অনেকেই বাড়ি যাওয়ায় হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের মহাপরিচালক আলী আহমেদ খান বলেন, সম্পূর্ণ অপরিকল্পিতভাবে এসব স্থাপনা তৈরি করা হয়েছিল। এ কারণে আগুন নেভাতে গিয়ে পানির জোগান পেতে সমস্যা হয়েছে। এখনো কোনো হতাহতের খবর আমাদের জানা নেই।

অপরিকল্পিত স্থাপনা নির্মাণের বিষয়টি স্বীকার করেন স্থানীয় সাংসদ এ কে এম রহমত উল্লাহ বলেন, এরপর যাতে এখানে আর এভাবে স্থাপনা তৈরি না হয় তা তিনি দেখবেন।

এই বিভাগের আরো সংবাদ