বৃন্দাবনে টাকার বৃষ্টি!
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » টুকিটাকি

বৃন্দাবনে টাকার বৃষ্টি!

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

পৃথিবীর অনেক মানুষ স্বপ্ন দেখেন কোনো একদিন হয়তো বৃষ্টির মতো টাকা পড়বে মাথার ওপর। এ স্বপ্ন অনেকের কাছে স্বপ্নই। তবে আশ্চর্যজনক হলেও এমন স্বপ্ন গত ১৯ জুলাই পূরণ হয়েছে ভারতের উত্তর প্রদেশের বৃন্দাবনের কিছু মানুষের।

এদিন ভারতের উত্তর প্রদেশের বৃন্দাবনে ৫০০ টাকার নোটের বৃষ্টি হয়েছে বলে আজ সোমবার দেশটির বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর পাওয়া গেছে।

স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, দেশজুড়ে যখন বর্ষার দাপাদাপি, তখন বৃন্দাবনেও গত শনিবার একদফা বৃষ্টি হয়ে গেল। তবে সেই বৃষ্টিতে আকাশ থেকে জল নয়, নেমে এল গুচ্ছের ৫০০ টাকার নোট। নকল নয়, একেবারে আসল, কড়কড়ে।

আর এই বৃষ্টি দেখে আপ্লুত মন্দিরে উপস্থিত ভক্তকূল নোট কুড়োতে লেগে গেলেন মহানন্দে। কিন্তু, আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্রে তো এই নোটবৃষ্টির কোনও পূর্বাভাস ছিল না। তাহলে কেন ঘটল এমনটা?

আসলে মুম্বাইয়ের এক বাসিন্দা বাঁকে বিহারি মন্দিরে গিয়েছিলেন পুজো দিতে। তাঁর সঙ্গে ছিল দেড় লাখ টাকায় ঠাসা একটি ব্যাগ। সবকটি ছিল ৫০০ টাকার নোট। হেমবতী সোঙ্কর(৫০)-এর সেই ব্যাগটি ‘হাইজ্যাক’ করে একটি বাঁদর। গরমের দুপুরে হঠাৎ ব্যাগটি কেড়ে নিয়ে রামভক্তটি আশ্রয় দেয় একটি গাছের মগডালে। সেখান থেকে ব্যাগ খুলে ভিতরের সব নোট উপুড় করে ঢেলে দেয় মাটিতে। ব্যাস! মন্দিরের আশেপাশে সব লোক ভাবেন, টাকার বৃষ্টি হচ্ছে। নোট কুড়োনোর ধুম লেগে যায়। তাও আবার এক একটি নোট ৫০০ টাকার। এই ছোটাছুটিতে ওই মহিলার দামি মোবাইলটিও চোট হয়ে যায়। ফোনটির দামই ছিল ৩০ হাজার টাকা।

স্থানীয় সূত্রে খবর, ওই মহিলা তার স্বামী ও দুই মেয়েকে নিয়ে আগ্রা, মথুরা ও বৃন্দাবন বেড়াতে বেড়িয়েছিলেন মুম্বাই থেকে। রোববার তাদের মুম্বাই ফেরার কথা ছিল তাদের। ফেরার আগে বাঁকে বিহারির মন্দিরে পুজো দেওয়ার জন্য খানিক দাঁড়িয়েছিলেন। আর সেখানেই ঘটে যায় এই রুদ্ধশ্বাস ঘটনাটি।

এই বিভাগের আরো সংবাদ