জয় শুধুইই সময়ের ব্যাপার
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » ক্রিকেট

জয় শুধুইই সময়ের ব্যাপার

Tamim-Soumyaদক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে আজকের ওয়ান ডে ম্যাচ তথা সিরিজ জয়ের কাছাকাছি পৌঁছে গেছে বাংলাদেশ। তামিম ইকবাল আর সৌম্য সরকারের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে কূপোকাৎ দক্ষিণ আফ্রিকা। ১৬৯ রানের টার্গেট তাড়া করতে গিয়ে কোনো উইকেট না হারিয়ে বাংলাদেশ ১২৬ রান সংগ্রহ করেছে। হাতে আছে ২০ ওভারের বেশি।

ন্যাশনাল পলিমার ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয়ের লক্ষ্যে ঝড়ো সূচনা করে তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। ১২ ওভার শেষে বিনা উইকেটে টাইগারদের সংগ্রহ ৭৪। ৭১ রান নিয়ে সৌম্য সরকার ও ৪৬ রানে তামিম ইকবাল ব্যাট করছেন।

এর আগে বুধবার দুপুরে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক হাশিম আমলা। দলের হয়ে উদ্বোন করতে নামেন আমলা ও কুইন্টন ডি কক। আজও দেখেশুনে সূচনা করার চেষ্টা করেন তারা। তবে তাতে ফের বাধ সাধেন সেই মুস্তাফিজুর। ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই অতিথিদের ব্যাটিংয়ে প্রথম আঘাত হানেন তিনি। নিজের দ্বিতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ডি কককে (৭) বোল্ড করে সাজঘরে ফেরান এই বিস্ময় বালক।

এরপর অষ্টম ওভারের প্রথম বলে মুশফিকুর রহিমের সহযোগিতায় ডু প্লেসিসকে (৬) সাজঘরে ফেরান বাংলাদেশের জান সাকিব আল হাসান।

১৪তম ওভারের তৃতীয় বলে অধিনায়ক ও উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হাশিম আমলাকে (১৫) সাজঘরে ফেরাতে সাকিবকে সহযোগিতা করেন মুশফিক। এ নিয়ে ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ২০০তম উইকেট সংগ্রহের মাইলফলক স্পর্শ করেন সাকিব। এর আগে ওয়ানডে ক্রিকেটে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ২০০ উইকেট শিকার করেন বাম হাতি স্পিনার আব্দুর রাজ্জাক। এর মাধ্যমে ওয়ানডে ক্রিকেটে চার হাজার রান ও দুই’শ উইকেটের ‘ডাবল’ ক্লাবেও ঢুকে পড়েন সাকিব। এর আগে অভিজাত ক্লাবের সদস্য ছিলেন জয়াসুরিয়া, ক্রিস হ্যারিস, ক্রিস কেয়ার্নস, জ্যাক ক্যালিস, শহীদ আফ্রিদি ও আবদুল রাজ্জাক।

দলীয় ৫০ রানে রাইল  রুশোকে (১৭) সাজঘরে ফেরান বাংলাদেশের অফ স্পিনার মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। তার করা ১৬তম ওভারের প্রথম বলে মুশফিকুর রহিমের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন রুশো। এরপর প্রচণ্ড বেগে বৃষ্টি বাগড়া দিলে ঘণ্টাখানেক খেলা বন্ধ থাকার পর আবার খেলা শুরু হয়।  এসময় প্রাথমিক বিপর্যয়ে পড়া দলকে টেনে তোলার চেষ্টা করেন জেপি ডুমিনি ও ডেভিড মিলার।

এবার প্রতিপক্ষ শিবিরে আঘাত করেন বাংলাদেশের অধিনায়ক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। তার করা ৩০তম ওভারের শেষ বলে সাব্বির রহমানের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন প্রতিপক্ষ দলের ‘কিলার’খ্যাত ব্যাটসম্যান ডেভিড মিলার (৪৪)। এটি বাংলাদেশের পক্ষে খুবই গুরুত্বপূর্ণ উইকেট। এ নিয়ে একই ম্যাচে সাকিবের পর ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ২০০তম উইকেট সংগ্রহের মাইলফলক স্পর্শ করেন মাশরাফি।

এরপর প্রোটিয়া শিবিরে ষষ্ঠ আঘাত হানেন বাংলাদেশের জান সাকিব আল হাসান। তার করা ৩৬তম ওভারের প্রথম বলে সাব্বির রহমানের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন প্রোটিয়া মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান বেহারদিন (১২)।

তারপর দক্ষিণ  শিবিরে আবার বিষাক্ত ছোবল মারেন বাংলাদেশের বিস্ময় বালক মুস্তাফিজুর রহমান। এ উদীয়মান পেসারের করা স্লো কাটারে ৩৭তম ওভারের চতুর্থ বলে সাজঘরে ফেরেন প্রোটিয়াদের টেইলএন্ডার ব্যাটসম্যান রাবাদা (১)।

৪০তম ওভারে দক্ষিণ আফ্রিকা শিবিরে নিজের হয়ে প্রথমারের মতো ছোবল মারেন বাংলাদেশের গতি ও রিভার্স সুইং তারকা রুবেল হোসেন। তার করা দ্বিতীয় বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন প্রতিপক্ষ দলের লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যান কাইল অ্যাবোট (৫)। একই ওভারের শেষ বলে রুবেলের শিকারে পরিণত হন  দক্ষিণ আফ্রিকার মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান জেপি ডুমিনি (৫১)। তিনি লিটন দাসের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন। এরই সাথে ১৬৮ রানে গুটিয়ে যায় প্রোটিয়াদের ইনিংস।

বাংলাদেশের পক্ষে সাকিব আল হাসান নেন ৩টি উইকেট। মুস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন নেন ২টি করে উইকেট। এছাড়া মাশরাফি ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ পান ১টি করে উইকেট।

এই বিভাগের আরো সংবাদ