জমজমাট এশিয়ার বৃহত্তম শপিং মল
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লিড নিউজ

জমজমাট এশিয়ার বৃহত্তম শপিং মল

ঈদের বাকি আর মাত্র তিন বা চারদিন। তাইতো শেষ মূহূর্তে এসে জমে উঠেছে এশিয়ার বহত্তম শপিং মল যমুনা ফিউচার পার্ক। গত বছর চালু হওয়া এই শপিংমলটি এবারই প্রথম ঈদের কেনাকাটায় যুক্ত হয়েছে। ক্রেতাদের কেনাকাটায় এখন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ব্যস্ত সময় পার করছে মলটি।

মঙ্গলবার সকালে এশিয়ার বৃহত্তম এই শপিং মলে সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, ক্রেতা আর দর্শনার্থীদের পদচারণায় ব্যস্ত হয়ে উঠেছে এই মার্কেট। মূলত মার্কেটটি সকালে না জমলেও ঈদকে সামনে রেখে সকাল থেকেই ভিড় বাড়ছে এখানে। মার্কেটটির নিচতলায় রয়েছে জেন্টেল পার্ক, গো গ্রাসি, আড়ং, ইনফিটিনিটি, ক্যাটস আই, নবরূপা, সাদাকালো, দেশী দশসহ বেশকিছু নামিদামি ব্র্যান্ড।

এশিয়ার বৃহত্তম শপিং মল যমুনা ফিউচার পার্কে কেনাকাটায় ব্যস্ত ক্রেতারা। ছবি মহুবার রহমান।

এশিয়ার বৃহত্তম শপিং মল যমুনা ফিউচার পার্কে কেনাকাটায় ব্যস্ত ক্রেতারা। ছবি মহুবার রহমান।

কথা হয় নবরুপার বিক্রয়কর্মী সাইফুল ইসলামের সাথে। তিনি অর্থসূচকের এই প্রতিবেদককে জানান, রমজানের প্রথম দিকে বেচাকেনা কম হলেও শেষের দিকে এসে অনেক বেড়েছে। তাদের পণ্যের মধ্যে শাড়ির চাহিদা বেশি বলে জানালেন তিনি। এগুলো পাঁচশ থেকে ১২ হাজার টাকার মধ্যে বিক্রয় হচ্ছে।

আড়ং এর আউটলেট সুপারভাইজার শাম্মী আক্তার জানান, সকালের তুলনায় বিকেলে বেচাবিক্রি বেড়ে যায়। ঈদে পাঞ্জাবি, শাড়ি ও চিলড্রেন ড্রেসের চাহিদাই বেশি বলে জানান শাম্মী। আড়ং এর পাঞ্জাবী বিক্রি হচ্ছে ছয়শ থেকে ৬ হাজারের মধ্যে। আর শাড়ি বিক্রি হচ্ছে আটশ থেকে ৫০ হাজার টাকার মধ্যে।

মার্কেটের দোতলায় রয়েছে ইয়েলো, এস্টেসি, রিচম্যান, আর্টিজন, আর্টিস্টি কালেকশন, গ্রামীণ, টেক্সমার্ট, ফিট এলিগেন্স, লিভাইসসহ অন্য পোশাকের দোকান। তৃতীয় তলায় রয়েছে জুতার মার্কেট। জুতার দোকানগুলোর মধ্যে বাটা, গ্যালারি এপেক্স, জিলস, লট্টো। চতুর্থতলাতে রয়েছে গহনার দোকান। আর শিশুদের জন্য রয়েছে কিডল্যান্ড, বেবিশপ এবং টেক্সমার্ট জুনিয়রসহ বেশ কিছু শোরুম।

এশিয়ার বৃহত্তম শপিং মল যমুনা ফিউচার পার্কে কেনাকাটায় ব্যস্ত ক্রেতারা। ছবি মহুবার রহমান।

এশিয়ার বৃহত্তম শপিং মল যমুনা ফিউচার পার্কে কেনাকাটায় ব্যস্ত ক্রেতারা। ছবি মহুবার রহমান।

ঈদকে কেন্দ্র করে মার্কেটে চলছে নানা অফার। যেমন ক্যাশ ব্যাক, বিশেষ ডিসকাউন্ট আর কুপন। আর উপহারের আশায় ক্রেতারাও ভিড় জমাচ্ছেন এই মার্কেটে।

ঈদের কেনাকাটায় পোশাকের পাশাপাশি সুগন্ধির রয়েছে বিশেষ চাহিদা। যমুনা ফিউচার পার্কে রয়েছে বেশ কিছু পারফিউমের দোকান। যেখানে পাওয়া যাচ্ছে পৃথিবীর বিখ্যাত সব পারফিউম।

বাংলাদেশের অত্যাধুনিক এই শপিংমলেই আছে টাইম জোনের সুবিশাল শোরুম। যেখানে আছে টাইটান, সিটিজেন, ক্রিডেন্স, রাডোসহ পৃথিবী বিখ্যাত সব ব্র্যান্ডের ঘড়ি। তাই পছন্দের সব ঘড়ি কিনতে ভিড় দেখা গেছে টাইমজোনের শোরুমেও। মার্কেটটির টপ ফ্লোরে রয়েছে বিশাল ফুড জোন। যেখানে পাওয়া যাচ্ছে ইফতারের নানা আইটেম।

উত্তরা থেকে যমুনা ফিউচার পার্কে ঈদ শপিং করতে এসেছেন লিপি আক্তার। তিনি জানান, এই প্রথমবার এসেছি এখানে। খুবই ভাল লাগছে। এখানে অনেক স্বাচ্ছন্দে শপিং করা যায়। তাই এনজয় করছি।

এই বিভাগের আরো সংবাদ