১০ মাসে ৫ বার মা!
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » টুকিটাকি

১০ মাসে ৫ বার মা!

১০ মাসে পাঁচবার মা হয়েছেন উত্তর প্রদেশের ৬০ বছরের এক নারী! এ কথা শুনলে নিশ্চয়ই কপাল কুঁচকাবে সবার। তবে আপাতত এতে হতবাক হওয়ার কিছু নেই।

এভাবেই প্রকল্পের টাকা ব্যাংক থেকে তোলেন নারীরা। ছবি সংগৃহীত

এভাবেই প্রকল্পের টাকা ব্যাংক থেকে তোলেন নারীরা। ছবি সংগৃহীত

ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর প্রদেশে। সেখানে ‘জননী সুরক্ষা যোজনা’ নামে একটি প্রকল্প চালু রয়েছে। এই প্রকল্প অনুযায়ী সেই প্রদেশে কোনো নারী মা হওয়ার কিছু দিন পরেই সরকার প্রদত্ত আর্থিক অনুদান পান। প্রসবের পর মা ও সন্তান যাতে ভালো থাকে এজন্য এই অনুদান দেওয়া হয়। সেই অনুদান বণ্টনে ঢুকে পড়েছে দুর্নীতির ঘটনা। যা শুনলে রীতিমতো গা শিহরণ দিয়ে উঠে।

‘জননী সুরক্ষা যোজনা’প্রকল্পে অনুদান পাওয়া নারীরা কখনও তিন মাসে চার বার মা হওয়ার রিপোর্ট জমা দিয়ে টাকা নিয়েছেন। কখনও আবার ১২ বছর আগে মা হয়ে এখন এই প্রকল্প থেকে টাকা নিচ্ছেন।

আরও মজাদার কথা হলো ৬০ বছরের এক নারী ১০ মাসে পাঁচবার মা হওয়ার কথা জানিয়ে নিয়মিত এই সুরক্ষা যোজনা থেকে টাকা পাচ্ছেন।

কিছুদিন আগে প্রদেশটির বদুঁয়ার আশা দেবী নামের এক নারী চার মাসের ব্যবধানে তিনবার গর্ভবতী হওয়ার কথা জানিয়ে ব্যাংক থেকে এই প্রকল্পের টাকা তোলেন। এতে ব্যাংকের এক কর্মী সন্দেহপরায়ণ হয়ে তা জানান ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের। এরপরই বাধে হট্টগোল। কেঁচো খুড়েত বেরিয়ে আসে কেউটে। শুধু একা আশা দেবী নয় উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন জেলার অসংখ্য নারী নানাভাবে বিভ্রান্তমূলক তথ্য দিয়ে ‘জননী সুরক্ষা যোজনা’-র সুবিধা নিয়েছেন। আর এই অনিয়মে অভিযোগের কাঠগড়ায় উঠেছে উত্তরপ্রদেশ সরকার।

অনেকে এই কেলেঙ্কারিকে বলছেন ‘মা কেলেঙ্কারি’। আবার কেউ বলছেন, এটা সব কেলেঙ্কারির মা।

এই বিভাগের আরো সংবাদ