জাতীয় গ্রিডে যোগ হচ্ছে আমদানি করা ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ

ফাইল ছবি
ছবি: ফাইল ছবি

electrycityশেষ পর্যন্ত ভারত থেকে আমদানি করা মোট ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে যু্ক্ত হচ্ছে আগামি বুধবার থেকে। এর মধ্যে গত ৫ অক্টোবর থেকে সরকারি ভাবে ১৭৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আসতে শুরু করে। আর আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে বেসরকারি ভাবে আসতে শুরু করেছে আরও ২৫০ মেগাওয়াট এবং সরকারি ভাবে বাকি ৭৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ।

 

বেসরকারি খাতের প্রতিষ্ঠান পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি বাংলাদেশের পরিচালক আজ থেকে ২৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আসার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আমদানিকৃত এই বিদ্যুৎতের দামও নির্ধারণ করা হয়ে গেছে বলে জানান তিনি। সরকারি ভাবে আমদানি করা বিদ্যুতের দাম গ্রাহক পর্যায়ে প্রতি ইউনিটে ধরা হয়েছে পাঁচ টাকা। আর বেসরকারি ভাবে আনা বিদ্যুৎ প্রতি ইউনিটে পরবে প্রায় সাত টাকা।

প্রসঙ্গত দেশের বিদ্যুতের চাহিদা পুরণের জন্য ভারত থেকে বিদ্যুৎ আমদানির সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। চলতি বছর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৫ অক্টোবর কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা গ্রিড উপকেন্দ্রে গিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের সাথে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিদ্যুৎ আমদানির আনুষ্ঠানিক উদ্ভোধন করেন।

ওই দিন ভারতের সরকারি খাত থেকে নতুন সঞ্চালন লাইনের মাধ্যমে ১৭৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে সঞ্চালিত হতে শুরু করে। সে সময় জানানো হয় নভেম্বর মাসেই বেসরকারি ভাবে বাকি বিদ্যুৎ আসতে শুরু করবে। তবে আলোচ্য সময়ের মধ্যে গ্রিডের সামান্য কিছু কাজ অসমাপ্ত থাকায় কয়েক দিন বিলম্ব হয়।

উল্লেখ্য চুক্তি অনুসারে আগামি ২৫ বছর ভারত থেকে প্রতিদিন গড়ে চুক্তির মেগাওয়াট বিদ্যুৎ বাংলাদেশে আসবে।  ২০১০ সালের জানুয়ারিতে প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরকালে দুই দেশের মধ্যে বিদ্যুৎ খাতে সহযোগিতার লক্ষ্যে একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই হয়। ওই চুক্তি অনুসারে ২০১২ সালের মধ্যেই ভারতের সরকারি খাত থেকে ২৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আসার কথা ছিল। কিন্তু ভারতীয় অংশে সঞ্চালন লাইন প্রস্তুত করতে বিলম্ব হওয়ায়, কয়েক দফা পিছিয়ে যায় বিদ্যুৎ আমদানি।