২০৫০ সালের মধ্যে স্তন ক্যান্সার দূর সম্ভব!
রবিবার, ৭ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লাইফস্টাইল

২০৫০ সালের মধ্যে স্তন ক্যান্সার দূর সম্ভব!

২০৫০ সালের মধ্যে স্তন ক্যান্সারে মৃত্যু জিরো টলারেন্সে আনা সম্ভব বলে মনে করেন ব্রিটেনের ম্যানচেস্টার শহরের আইটি বিশেষজ্ঞ অ্যালেক্স জোনস।

স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত নারী।ফাইল ছবি

স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত নারী।ফাইল ছবি

স্তন ক্যান্সার নিয়ে সম্প্রতি একটি দাতব্য সংস্থার অধীনে নির্মিত ফিল্মে (মিশন ২০৫০) তিনি তার এই আশাবাদের কথা জানিয়েছেন।

ফিল্মে কাজ করা তার এই দল স্তন ক্যান্সারের বিরুদ্ধে সচেতনতা প্রচারে কাজ করে যাচ্ছে। জোনস ২৩ বছরে এ ক্যান্সারে আক্রান্ত হন।

তিনি জানান, তিনি স্তন ক্যান্সারে মারা যাওয়া শেষ ব্যক্তি হতে চান না। তবে কেউ না কেউ তো এ রোগে মারা যাওয়া শেষ ব্যক্তি হবেনই।

জোনস বলেন, এই রোগের কঠিন পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে বিশ্বে নতুন নতুন গবেষণা হয়েছে। আরও গবেষণার দরকার রয়েছে। সঠিক গবেষণা হলে অদূর ভবিষ্যতে এ রোগে মৃত্যুর হার একেবারেই জিরো ডিগ্রীতে কমিয়ে আনা সম্ভব।

তবে তার এই মিশন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন চিকিৎসা বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন, এই রোগ হতে সম্পূর্ণ আরোগ্য লাভ এখনও সময়সসাপেক্ষ।

ফেসবুকে প্রচারণাকর্মী হিসেবে কাজ করছেন অ্যালেক্স। ডাক্তাররা প্রাথমিকভাবে তার এই রোগের উপসর্গ নির্ণয় করতে ব্যর্থ হন। বর্তমানে তার কেমোথেরাপি ও রেডিওথেরাপি চলছে। তারপরও রোগ বেড়ে চলেছে। তিনি এ রোগের বিরুদ্ধে তার সংগ্রাম চালিয়ে যেতে চান।

লন্ডনের ইম্পেরিয়াল কলেজের অধ্যাপক চার্লস কুমবেস বলেন, ২০৫০ সালে স্তন ক্যান্সারে মৃত্যু প্রতিরোধ করার স্বপ্ন নিসেন্দেহে সাধুবাদ পাওয়ার যোগ্য। তবে এটি অতিরিক্ত আশাবাদ। গত তিন দশকে স্তন ক্যান্সারে মৃত্যুর হার ৫০ শতাংশ কমেছে। আর এ হার যদি অব্যাহত থাকে তাহলে এ আশাবাদ করা যেতেই পারে। কিন্তু স্তন ক্যান্সার দিনের পর দিন কঠিন থেকে অধিকতর কঠিন হয়ে যাচ্ছে।

এদিকে ২০৫০ প্রচারণা মিশন দল বলছে, আমরা বিশ্বাস করি, ‘এটি একটি উচ্চাভিলাষী ও বাস্তবসম্মত লক্ষ্য। এ রোগ নিমূর্লে সমর্থকদের উদারতা ও মনোভাব থাকলে আমরা এ লক্ষ্য অর্জনে সক্ষম হবো। সেইসঙ্গে বিজ্ঞানী, ক্লিনিসিয়ান ও এর সাথে সংশ্লিষ্টদের সহায়তা পেলে এ লক্ষ্য অর্জন সম্ভব।

এই বিভাগের আরো সংবাদ