নেতৃত্ব ছাড়তে পারেন ধোনি!
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » ক্রিকেট

নেতৃত্ব ছাড়তে পারেন ধোনি!

Dhoni

অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেওয়ার কথা ভাবছেন ভারতীয় দলের ক্যাপ্টেন মহেন্দ্র সিং ধোনি

পর পর দুই ম্যাচে নাকানি চুবানি খেয়ে বাংলাদেশের কাছে ওয়ানডে সিরিজ হারানোর বেদনায়, অপমানে মুষড়ে পড়েছেন ভারতীয় দলের ক্যাপ্টেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। সাম্প্রতিক সময়ে ভারতের ক্রিকেটে এমন চুনকালি আর পড়েনি। এই অবমাননার দায় অনেকটাই চেপে বসেছে অধিনায়ক ধোনির কাঁধে। এ কারণে তিনি নেতৃত্ব ছেড়ে দেওয়ার কথা ভাবতে শুরু করেছেন। ইতোমধ্যে এ বিষয়ে আভাসও দিয়েছেন তিনি। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়া।

রোববার ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে ধোনি বলেন, যদি আমি ক্যাপ্টেনের দায়িত্ব ছেড়ে দিলে, দলের ভালো হয়, তাহলে আমি সানন্দে তা করতে রাজি আছি। তিনি বলেন, ভারতীয় দলের যত ব্যর্থতা, সব দায় আমার। এ সময় তার কণ্ঠ থেকে কিছুটা হতাশা, ক্ষোভ ও শ্লেষ ঝরে পড়ে। তিনি বলেন, আমিই সে ব্যক্তি ভারতীয় ক্রিকেটের সব মন্দের জন্য যে দায়ী।

ধোনি বলেন, ভারতীয় দলের যত ব্যর্থতা, সব দায় আমার। এ সময় তার কণ্ঠ থেকে কিছুটা হতাশা, ক্ষোভ ও শ্লেষ ঝরে পড়ে

দলের অধিনায়ক হিসেবে কতদিন খেলা চালিয়ে যেতে চান এমন প্রশ্নের জবাবে ধোনি তার অভিমানের জায়গাটা স্পষ্ট করেন। ভারতীয় সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমি এখনও খেলা উপভোগ করছি। আর কিছুদিন খেলা চালিয়ে যেতে চাই আমি। তবে আপনারা যদি মনে করেন, ভারতীয় দলের সব ব্যর্থতার জন্য আমি দায়ী, তাহলে দায়িত্ব থেকে সরে যেতে আমার কোনো আপত্তি থাকবে না।

তিনি আরও বলেন, একজন পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে যে কোনো অধিনায়কের অধীনে খেলতে তার কোনো সমস্যা হবে না।

অবশ্য শুধুই মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়ার জন্য নয়, অধিনায়কত্ব হারানোর ভয়েও আগে থেকে সরে যাওয়ার কথা ভেবে থাকতে পারেন ধোনি। কারণ বাংলাদেশের কাছে প্রথম ওয়ান ডে ম্যাচ হারার পরই ভারত জুড়ে তার অধিনায়কত্ব নিয়ে তীব্র সমালোচনা শুরু হয়। রোববার দ্বিতীয় ম্যাচ তথা সিরিজ হারার পর এ বিতর্কের আগুনে ঘি পড়ে। তাই মানে মানে কেটে পরার কথা ভেবে থাকতে পারেন ভারতের এই ‘সফলতম’ অধিনায়ক

আইপিএলে ম্যাচ পাতানোর ঘটনা ফাঁস, বিশ্বকাপ ক্রিকেটে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে কারসাজিমূরক জয় ইত্যাদি কেলেঙ্কারি এসনিতেই পিছে লেগেছিল ভারতের। এর মধ্যে আইসিসি র‌্যাংকিংয়ে পেছনের  দিকে থাকা দল বাংলাদেশের কাছে দুই নাম্বার দল ভারতের শোচনীয় সিরিজ হার ওই বিতর্ককে আবার সামনে নিয়ে এসেছে।

গত বিশ্বকাপে আম্পায়ারিংয়ের ‘কারসাজির’ সুবাদে বাংলাদেশকে পরাজিত করা ভারতের কাছে চলমান সিরিজটি ছিল অগ্নি পরীক্ষা। প্রথম ম্যাচে হেরেই পরীক্ষায় গোল্লা পাওয়ার আশংকা জাগিয়ে তুলে ভারতীয় দল। ওই ধাক্কা তারা সামলাতে পারেনি। ভারতীয় দল বাঘের হুঙ্কারে এতটাই নার্ভাস হয়ে পড়ে যে, প্রথম ম্যাচেই নিজের উপর নিয়ন্ত্রণ হারান অধিনায়ক ধোনি। অকারণে তিনি সেদিনের বিজয়ের নায়ক মুস্তাফিজুরকে ধাক্কা দিয়ে বসেন। এ অপরাধে আইসিসি তার ম্যাচ ফির ৭৫ শতাংশ কেটে নেয়।

এখানেই শেষ নয়। পরাজয়ে মুষড়ে পড়া ভারতীয় দল সেদিন ডিনারও করেনি। স্টেডিয়ামে তাদের জন্য ডিনারের ব্যবস্থা থাকলেও তারা ডিনার না করেই হোটেলে ফিরে যায়। এমনকি হোটেলেও তারা রতের খাবার খাননি। বরং প্রত্যেকেই নিজ নিজ কক্ষে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেন। এ সময় চুপসারে কেউ কেউ কেঁদেছেন কি-না তা অবশ্য জানা যায়নি।

এই বিভাগের আরো সংবাদ