আইসিবি কিনেছে বেশি, বেচেছে বেশি বিডি ফিন্যান্স
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » পুঁজিবাজার
শীর্ষ ১০ ব্রোকারের লেনদেন

আইসিবি কিনেছে বেশি, বেচেছে বেশি বিডি ফিন্যান্স

ICB-Bdfinance

আইসিবি ও বিডি ফিন্যান্সের লোগো

এক মাসের গতিশীলতার পর হঠাৎ যেন ছন্দ হারিয়ে ফেলেছে দেশের পুঁজিবাজার। বিশেষ করে বাজেট ঘোষণার পরবর্তী দুই কর্মদিবসের লেনদেনচিত্রে অনেকেই হতাশ। এর মধ্যে সোমবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স কমে যায় ৭৫ পয়েন্ট বা প্রায় দেড় শতাংশ।

সোমমবার বাজারে লেনদেনও কমেছে। এদিন ডিএসইতে ৫৮৬ কোটি টাকা মূল্যের শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে। এটি আগের দিনের চেয়ে প্রায় ১০ শতাংশ কম।

সোমবার ডিএসইতে লেনদেনে শীর্ষ দশে থাকা আটটি প্রতিষ্ঠানের ৮টিতেই শেয়ার কেনার তুলনায় বিক্রি হয়েছে বেশি। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- বিডি ফিন্যান্স সিকিউরিটিজ, এবি সিকিউরিটিজ, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং, লংঙ্কাবাংলা সিকিউরিটিজ, পিএফআই সিকিউরিটিজ, ইউনিক্যাপ সিকিউরিটিজ ও আইডিএলসি সিকিউরিটিজ।

অন্যদিকে বিক্রির তুলনায় বেশি কিনেছে আইসিবি সিকিউরিটিজ ট্রেডিং কোম্পানি লিমিটেড ও এআইবিএল ক্যাপিটাল মার্কেট সার্ভিস লিমিটেড।

সোমবার আলোচিত ১০ প্রতিষ্ঠানের মোট লেনদেনের পরিমাণ ছিল ৩৮৪ কোটি ৬২ লাখ টাকা। এর মধ্যে কিনেছে ১৮১কোটি ৭৯ লাখ টাকার। আর বিক্রি করেছে ২০২ কোটি ৮৩ লাখ টাকার শেয়ার।

বিভিন্ন ব্রোকারহাউজের কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, কয়েকটি কারণে বাজারে এখন বিক্রির চাপ অনেক বেশী। বাজেট ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মুদির সফরকে ঘিরে বাজারে অনেক সিকিউরিটিজের দর বেড়েছে। দর বাড়ার কারণে বিনিয়োগকারীরা তাদের লভ্যাংশ তুলে নিচ্ছে। এর একটি চাপ পড়েছে বাজারে। তবে প্রতিষ্ঠানের পোর্টফলিওতে থাকা কোনো শেয়ার তারা বিক্রি করেননি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকটি ব্রোকারহাউজের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা অর্থসূচককে বলেন, তারা বিনিয়োগকারীদের চাপে শেয়ার বিক্রি করেছেন। কিন্তু নিজেদের পোর্টফোলিও থেকে কোনো শেয়ার বিক্রি করেননি।

এক প্রশ্নের জবাবে লংকাবাংলার উর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, তাদের প্রতিষ্ঠানে দেশীয় বিনিয়োগকারীদের তুলনায় বিদেশী বিনিয়োগকারীদের দিক থেকে বিক্রির চাপ বেশি ছিল। এক ধরনের আতঙ্কে তারা বিক্রি করছেন বলে মনে করেন তিনি।

সোমবার আলোচিত প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে লংকাবাংলা সিকিউরিটিজ সবচেয়ে বেশি শেয়ার বিক্রি করেছে। বিক্রি পরিমাণ ৪৬ কোটি ৪৭ লাখ ২১ হাজার টাকা। তবে শেয়ার কেনার দিক থেকে প্রতিষ্ঠানটি শীর্ষে ছিল। এদিন লংকাবাংলা শেয়ার কিনেছে ৪২ কোটি ২৯ লাখ ৪০ হাজার ৯৯৯ টাকার। ফলে নিট বিক্রির পরিমাণ ছিল ৪ কোটি ১৮ লাখ টাকা। প্রতিষ্ঠানটি মোট ৮৮ কোটি ৭৬ লাখ ৬২ হাজার টাকার কেনাবেচা করেছে।

আইসিবি সিকিউরিটিজ ট্রেডিং কোম্পানি লিমিটেড ৪১ কোটি ৫৯ লাখ ৯১ হাজার ২১৪ কোটি টাকার শেয়ার কিনেছে। এর বিপরীতে বিক্রি করেছে ২৯ কোটি ৯৪ লাখ ৮৪ হাজার ৩৮৪ টাকার। এ প্রতিষ্ঠানটি মোট ৭১ কোটি ৫৪ লাখ ৭৫ হাজার টাকার কেনাবেচা করেছে।

সোমবার লেনদেনের ক্ষেত্রে তৃতীয় অবস্থানে ছিল ইউনিক্যাপ। এ দিন ৪৪ কোটি ৪০ লাখ ৭৬ হাজার টাকার কেনা-বেচা করেছে। এর মধ্যে ২০ কোটি ৮৮ লাখ ৯৫ হাজার  টাকার শেয়ার কিনেছে। আর বিক্রি করেছে ২৩ কোটি ৫১ লাখ টাকার।

চতুর্থ অবস্থানে ছিল ব্র্যাক ইপিএল স্টক ব্রোকার। সোমবার এ প্রতিষ্ঠানটির মোট লেনদেনের পরিমাণ ছিল ৩৮ কোটি ১৯ লাখ টাকা। এর মধ্যে প্রতিষ্ঠানটি কিনেছে ১৮ কোটি ৫০ লাখ টাকার শেয়ার। এর বিপরীতে বিক্রি করেছে ১৯ কোটি ৬৯ লাখ টাকার শেয়ার।

পঞ্চম অবস্থানে ছিল এআইবিএল ক্যাপিটাল মার্কেট সার্ভিস লিমিটেড। এদিন এ প্রতিষ্ঠানটির লেনদেনের পরিমাণ ছিল ৩৫ কোটি ৪ লাখ টাকা। এর মধ্যে কিনেছে ১৮ কোটি ১১ লাখ। এর বিপরীতে বিক্রি করেছে ১৬ কোটি ৯২ লাখ টাকা।

এর পরই ছিল আইডিএলসি সিকিউরিটিজ। এদিন প্রতিষ্ঠানটির লেনদেনের পরিমাণ ছিল ৩০ কোটি ৮০ লাখ টাকা। এর মধ্যে বিক্রি করেছে ১৬ কোটি ৯২ লাখ টাকার শেয়ার। আর কিনেছে ১৪ কোটি ৬৭ লাখ টাকার শেয়ার।

সপ্তম অবস্থানে ছিল বিডি ফিন্যান্স সিকিউরিটিজ। প্রতিষ্ঠানটি সোমবার লেনদেন করেছে ১৮ কোটি ৫০ হাজার টাকা। এরমধ্যে কিনেছে ৪ কোটি ৫২ লাখ টাকার শেয়ার, আর ১৩ কোটি ৪৮ লাখ টাকার শেয়ার বিক্রি করেছে।

এর পর ছিল পিএফআই সিকিউরিটিজ। এদিন প্রতিষ্ঠানটি মোট ২৩ কোটি ২৪ লাখ  টাকার শেয়ার লেনদেন করে। এর মধ্যে ক্রয় করেছে ৯ কোটি ৯৯ লাখ টাকার শেয়ার। আর বিক্রি করেছে ১৩ কোটি ২৫ লাখ টাকার শেযার।

নবম অবস্থানে ছিল এবি সিকিউরিটিজ। এদিন প্রতিষ্ঠানটি ৩ কোটি ৮৪ লাখ টাকার শেয়ার ক্রয় করেছে। এর বিপরীতে বিক্রয় করেছে ১১ কোটি ৭৪ লাখ টাকার শেয়ার।

দশম অবস্থানে ছিল ইন্টারন্যাশনাল লিজিং সিকিউরিটিজ। এ প্রতিষ্ঠানটির সোমবারের লেনদেনর পরিমাণ ছিল ১৯ কোটি ১ লাখ টাকা। এরমধ্যে কিনেছে ৭ কোটি ৩৫ লাখ টাকার শেয়ার, আর ১১ কোটি ৬৫ লাখ টাকার শেয়ার বিক্রি করেছে।

অর্থসূচক/জিইউ

এই বিভাগের আরো সংবাদ