সুদ গুণবে বাংলাদেশ, ভারতে ৫০ হাজার কর্মসংস্থান
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক
২ বিলিয়ন ডলার ঋণের প্রভাব

সুদ গুণবে বাংলাদেশ, ভারতে ৫০ হাজার কর্মসংস্থান

Indian-Worker

ভারতের শিল্প শ্রমিক

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফরে ২ বিলিয়ন ডলারের ঋণচুক্তি ( লাইন অব ক্রেডিট-এলওসি) করেছে দুই দেশ। অন্য যে কোনো বিদেশি ঋণের চেয়ে বেশ চড়া সুদেই এ ঋণ নিতে হবে বাংলাদেশকে।

বাংলাদেশকে এ ঋণ গছাতে পেরে ভারতের পোয়াবারো অবস্থা। একদিকে ঋণ থেকে দেশটি পাবে বিশাল অঙ্কের সুদ। অন্যদিকে ঋণের অর্থ ব্যবহারের জন্যে পণ্য ও সেবা সরবরাহ করার জন্য বিশাল কর্মযজ্ঞে ৫০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান হবে ভারতে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

ভারতের ওই ঋণে বাংলাদেশ সড়কসহ কিছু অবকাঠামো প্রকল্প বাস্তবায়িত হবে। ঋণ চুক্তির শর্ত অনুসারে এসব প্রকল্পের জন্য প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম ভারত থেকেই কিনতে হবে। প্রকল্পের কমপক্ষে ৭৫ ভাগ কাঁচামাল ভারতে আমদানির বাধ্যবাধকতা রয়েছে চুক্তিতে।

ভারতের এ ঋণ ব্যবহার করা হবে নদী খনন, সড়ক উন্নয়ন, নৌবন্দর নির্মাণ, দেশটি থেকে দ্বিতল বাস আমদানিতে।

ভারত ঘোষিত ওই ঋণ আসবে দেশটির এক্সপোর্ট-ইমপোর্ট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া (এক্সিম ব্যাংক) থেকে। ঋণ চুক্তি সইয়ের পর বাংকটির চেয়ারম্যান এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইয়াদুভেন্দ্রা মাথুর টাইমস অব ইন্ডিয়াকে বলেন, ‘আমরা এরই মধ্যে ৮৬২ মিলিয়ন ডলারের এলওসি প্রদান করেছি। এ দুই বিলিয়ন ডলার এলওসি ভারতের কোম্পানিগুলোকে সাহায্য করবে।’

এ ঋণের ফলে ভারতের স্টিল, সিমেন্ট শিল্পের মতো বিভিন্ন খাতে ব্যাপক উন্নয়ন হবে বলে জানান মাথুর।কারণ ভারতের উৎপাদিত এসব পণ্য থেকেই বাংলাদেশে প্রকল্পগুলো সম্পন্ন করা হবে।

বাংলাদেশ সরকার এক্সিম ব্যাংকের ঋণের গ্যারান্টার হতে হবে।

ঋণের শর্ত অনুসারে লন্ডন আন্তঃব্যাংক  ঋণের সুদ হারের (লাইবর) আরো ২ দশমিক ২৫ শতাংশ বেশী হারে সুদ গুণতে হবে বাংলাদেশকে। এটি ৮ বছর বা তার কম সময়ে ঋণ পরিশোধের ক্ষেত্রে। ঋণ পরিশোধের মেয়াদ যত বাড়বে, ততই বাড়বে এর সুদ হার।

এই বিভাগের আরো সংবাদ