কমেছে তালিকাভুক্ত অনেক কোম্পানির কর্পোরেট কর
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » পুঁজিবাজার

কমেছে তালিকাভুক্ত অনেক কোম্পানির কর্পোরেট কর

কমেছে কর্পোরেট কর

কমেছে কর্পোরেট কর

২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেটে কর্পোরেট ট্যাক্স বা কোম্পানি করের ক্ষেত্রে বড় ধরনের পরিবর্তন এসেছে। কমেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত প্রায় সব কোম্পানির কর হার। অর্থ আইন ২০১৫ তে এ পরিবর্তন আনা হয়েছে; যা কিছুক্ষণ পরই জাতীয় সংসদে পাস হবে।

অর্থ আইন ২০১৫ অনুযায়ী ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে কর হার ৪২.৫০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৪০ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে মার্চেন্ট ব্যাংকের ক্ষেত্রে অপরিবর্তিত ৩৭ দশমিক ৫ শতাংশ রয়েছে। আর্থিক খাত ব্যাতিত অন্যান্য কোম্পানির কর হার ২৭.৫০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ২৫ শতাংশ করা করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। টেলিকম কোম্পানির ক্ষেত্রে তালিকাভুক্ত কোম্পানির ৪০ শতাংশ ও তালিকা বাহির্ভূত কোম্পানির ৪৫ শতাংশের পূর্বের অবস্থা বহাল রয়েছে।  অন্যদিকে টোব্যাকো কোম্পানির কর হার ৪২ দশমিক ৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৪৫ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

জানা গেছে, গত বছরের শেষভাগে রাজনৈতিক অচলাবস্থা, হরতাল-অবরোধে ব্যবসা-বাণিজ্য মারাত্মকভাবে ব্যাহত হওয়ায় কর কমিয়ে প্রতিষ্ঠানগুলোকে একটু স্বস্তি দেওয়া হচ্ছে। ব্যাংকের কর হার কমানো হলে সরকার বড় অংকের রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হবে জেনেও এ প্রস্তাব দেওয়া হচ্ছে। এর যুক্তি হিসেবে বলা হচ্ছে-রাজনৈতিক অস্থিরতায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ব্যাংকিং খাত। অবরোধ-হরতালে আমদানিসহ নানা কর্মকাণ্ড কমে যাওয়ায় এ খাত থেকে ব্যাংকের আয় কমেছে। অন্যদিকে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসা ও শিল্প প্রতিষ্ঠান ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতে না পারায় বিপুল পরিমাণ ঋণ পুন:তফসিল করতে হয়েছে। অনেক ক্ষেত্রে মওকুফ করতে হয়েছে ঋণের সুদ। র

দীর্ঘ দিন ধরে ব্যবসায়ীরা করপোরেট কর হার কমানোর দাবি জানিয়ে আসছেন। তাদের বক্তব্য- বাংলাদেশে করপোরেট করের হার পৃথিবীর মধ্যে সর্বোচ্চ। এত উচ্চ হারে কর দিয়ে প্রতিষ্ঠানের বিকাশ ঘটানো সম্ভব নয়।

অর্থনীতিবিদদেরও সায় রয়েছে ব্যবসায়ীদের এ দাবির প্রতি। তাদের বক্তব্য-উচ্চ কর হারের কারণে কর ফাঁকির প্রবণতাও বেশী। এতে তুলনামূলক ভালো ও স্বচ্ছ কোম্পানিগুলোকে অসম প্রতিযোগিতার মুখে পড়তে হয়।

ব্যবসায়ীদের দাবির মুখে চলতি বছরের ৩ ফেব্রুয়ারি অর্থমন্ত্রী প্রথমবারের মতো করপোরেট কর কমানোর আভাস দেন। তিনি বলেন, কোম্পানি করের কাঠামো খুব একটা যৌক্তিক নয়। কর হার কমিয়ে এটি যৌক্তিক করা প্রয়োজন।

এই বিভাগের আরো সংবাদ