তাজরিন ফ্যাশন মালিক দেলোয়ারকে গ্রেপ্তারের দাবিতে মানববন্ধন

tajrin

tajrinবহুল আলোচিত তাজরিন ফ্যাশন অ্যান্ড গার্মেন্টসে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় অভিযুক্ত মালিক দেলোয়ারসহ দোষীদের গ্রেপ্তার, আগুণে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার জন্য ওয়ালমার্ট, ডিকিস, ডেল্টা এপারেল, ডিজনি, সিআর, কিকসহ ৯টি কোম্পানিকে সহায়তা প্রদানের দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করেছে গার্মেন্টস শ্রমিকরা।

দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন, বাংলাদেশ বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন, বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশন, বাংলাদেশ মুক্ত গার্মেন্টস শ্রমিক ইউনিয়ন ফেডারেশন, জাতি গার্মেন্টস দর্জি শোয়েটর শ্রমিক ফেডারেশন আয়োজিত মানববন্ধনে তারা এ দাবি জানান।

এ সময় মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি আমিরুল হক আমিন।

মানববন্ধনে বক্তরা বলেন, তাজরিনের অগ্নিকাণ্ডে ১১২ জন শ্রমিক নিহত ও ১৫৫ জন আহত হয়। এরপর সেই ঘটনার মামলায় তদন্ত শেষে মালিক দেলোয়ারসহ ১৩ জনের নামে গত ২২ ডিসেম্বর একটি অভিযোগ দাখিল করা হয়। কিন্তু আজ ১৪ মাস অতিবাহিত হলেও তাদের কেউই গ্রেপ্তার হয় নি।

বক্তরা আরও বলেন, এই অগ্নিকাণ্ডে আহতদের অনেকে চিকিৎসার অভাবে পঙ্গুত্ব বরণ করতে যাচ্ছে। অবিলম্বে তাজরিনের আহত ও নিহত শ্রমিকদের পরিবারকে লজ অব আর্নিং এর ভিত্তিতে নিহতদের কমপক্ষে ২৪ লাখ এবং আহতদের কমপক্ষে ৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানানো হয়। এ সময় সকল গার্মেন্টসকে নিরাপদ কর্মস্থলে করার জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান তারা।

সভায় বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি সালাউদ্দিন রিপন, সাধারণ-সম্পাদক কামরুল আহসান, বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি এম দেলোয়ার হোসেন, বাংলাদেশ মুক্ত গার্মেন্টস শ্রমিক ইউনিয়ন ফেডারেশনের যুগ্ম- আহ্বায়ক রাশেদুল ইসলাম রাজু, জাতি গার্মেন্টস দর্জি শোয়েটর শ্রমিক ফেডারেশণের সভাপতি মোহাম্মদ রফিক, আহত শ্রমিক মিনা বেগম, নুরুন নাহার, নাসিমা প্রমুখ।

এসএস/কেএফ