ভোট ও ভাতের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য গণ-আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে: ১৮দল

BNP dinajpur

BNP dinajpurদেশের মানুষের ভোট ও ভাতের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে তীব্র গণ-আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। ভোটার বিহীন প্রহসনের নির্বাচন বাতিল করে অবিলম্বে সকল দলের অংশ গ্রহণে জাতীয় নির্বাচন দিতে হবে।

দিনাজপুর রেল স্টেশন চত্বরে গনসমাবেশে সোমবার বিকেলে ১৮ দলের নেতারা এসব কথা বলেন। স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ত রক্ষা, গনতন্ত্র সমুন্নত রাখা সকল দলের অংশ গ্রহণে নির্দলীয়-নিরপেক্ষ তত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দাবীতে  দিনাজপুরে ১৮ দল এই গণ-সমাবেশের আয়োজন করে।

বক্তারা বলেন, শহীদ জিয়া যে আওয়ামী লীগকে বাকশালের কবল থেকে ফিরিয়ে এনেছিলেন সেই আওয়ামী লীগ আবারো বাকশালের দিকে ধাবিত হচ্ছে। বাংলাদেশকে ভারতের তাবেদারী রাষ্ট্র বানাতে শেখ হানিসা মরিয়া হয়ে উঠেছে। দমন-নিপিড়ন চালিয়ে আগেও কেউ টিকে থাকতে পারেনি বর্তমান হাসিনার সরকারও টিকে থাকতে পারবে না। ৫ জানুয়ারী বাংলাদেশ জিতেছে আর আওয়ামী লীগ হেরেছে।

বক্তারা বলেন, সরকার দেশে একদলীয় বাকশালী শাসন ব্যবস্থা কায়েম করেছে। সরকার মামলা, জলুম নির্যাতন চালিয়ে বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের হয়রানী করছে। নেতাকর্মীদের ধরে নিয়ে গুলি করা হচ্ছে। আজ দেশে মানুষের সাধারণ মৃত্যুর গ্যারেন্টি নেই। বক্তারা আরো বলেন, সরকার দলের নেতাকর্মীরা সংখ্যালঘুদের উপর হামলা ও বাড়ী-ঘরে অগ্নিসংযোগ করে এর দায় বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের উপর চাপিয়ে দিচ্ছে। কিন্তু ১৮ দলের কোন নেতাকর্মী হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকদের বাড়ী-ঘরে হামলা বা ভাংচুর করেনি। কেউ এর প্রমাণ দিতে পারলে তাদের দল থেকে বহিষ্কার করা হবে।

তারা আরো বলেন, বিরোধীকে সভা-সমাবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। মামলা দিয়ে বিরোধীদলের আন্দোলনকে বন্ধ করা যাবে না। নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবী জানান ও অবিলম্বে নেতাকর্মীদের নামে দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও আটক নেতাকর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবী জানান বক্তারা।

জেলা বিএনপির সভাপতি লুৎফর রহমান মিন্টুর সভাপতিত্বে ও জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক হাসানুজ্জামান উজ্জল’র উপস্থাপনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সাবেক সাংসদ রেজিনা ইসলাম, জেলা জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমীর অ্যাড. মাহবুবুর রহমান ভূট্টো, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি অ্যাড. আনিসুর রহমান চৌধুরী, মাহবুব আহমেদ, খালেকুজ্জামান বাবু, জাগপার সভাপতি রকিব উদ্দীন চৌদুরী মুন্না, সহ-সভাপতি মাহবুব আলম ননী, জেলা ন্যাপের সভাপতি মঞ্জুরুল ইসলাম, জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আখতারুজ্জামান জুয়েল, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুল হক হেলাল, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোকাররম হোসেন, জেলা বিএনপির মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক কামরুজ্জামান, পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মান্নান সরকার, জেলা জাগপার যুগ্ম সম্পাদক ইশতিয়াকুল আলম, পৌর মহিলা দলের আহবায়ক কাউন্সিলর শাহিন সুলতানা বিউটি, যুব জাগপার সভাপতি সৈয়দ ইমরুল কায়েস রুপম, যুবদল নেতা মুখলেসুর রহমান বাবু, বিএনপি নেতা গোলাম রব্বানী প্রমূখ। সমাবেশে বিএনপিসহ ১৮ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

সাকি/