ArthoSuchak
মঙ্গলবার, ৭ই এপ্রিল, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » ব্যাংক-বিমা

১০% সুদ মওকুফ পাবেন ‘ভালো গ্রাহকরা’

bangladesh bank logo

বাংলাদেশ ব্যাংকের লোগো

নিয়মিত ঋণ পরিশোধকারী গ্রাহকদের ‘ভালো গ্রাহক’ হিসেবে উল্লেখ করে তাদের বিশেষ ঋণ সুবিধা প্রদানের নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। নির্দেশে ওই গ্রাহকদের ঋণ পরিশোধের ক্ষেত্রে আদায়যোগ্য সুদ বা মুনাফার ১০ শতাংশ মওকুফ করতে বলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। প্রজ্ঞাপনটি সব ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীর কাছেও পাঠানো হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে চলমান, তলবী ও মেয়াদী ঋণের যেসব গ্রাহক পরপর ৩ বছর ভালোভাবে ঋণ পরিশোধ করেছেন, যাদের কোনো ঋণ শ্রেণিকৃত করা হয়নি এবং তিন বছরের মধ্যে সংশ্লিষ্ট কোনো প্রতিষ্ঠানের ঋণ বিরূপ মানে শ্রেণিকৃত হয়নি তাদের ‘ভালো ঋণগ্রহীতা’ বলে সংজ্ঞায়িত করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

আর প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে ওইসব ভালো ঋণ গ্রহীতার হিসাবের বিপরীতে উক্ত বছরে আদায়কৃত সুদ বা মুনাফার কমপক্ষে ১০ শতাংশ অব্যাহতি (রিবেট) দিতে ব্যাংকগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পরবর্তী বছরগুলোতে ওই গ্রাহকরা ‘ভালো গ্রহীতা’ হিসেবে চিহ্নিত থাকলে এই সুবিধা অব্যাহতও রাখতে বলেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এছাড়া প্রয়োজনে এদের জন্য বর্ধিত ঋণ সুবিধা প্রদান করতে পারবে ব্যাংকগুলো।

প্রজ্ঞাপনে বার্ষিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ভালো ঋণগ্রহীতাদের পুরস্কৃত করে সামাজিকভাবে মর্যাদা বৃদ্ধির মাধ্যমে উৎসাহিত করতেও ব্যাংকগুলোকে নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এতে ভালো ঋণগ্রহীতাদের প্রণোদনা প্রদান প্রসঙ্গে বলা হয়েছে, ব্যাংকের ঋণ আদায় ও দেশের ব্যবসা-বাণিজ্য সচল রাখার স্বার্থে বাংলাদেশ ব্যাংক বিভিন্ন সময়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঋণগ্রহীতাদের জন্য ঋণ পুনঃতফসিল, পুনর্গঠনসহ বিভিন্ন নীতিমালা প্রণয়ন করে থাকে। এসব সুবিধার পাশাপাশি ব্যাংকগুলো নিজস্ব নীতিমালার আলোকেও তাদের গ্রাহকদের বিভিন্ন সুবিধা প্রদান করছে। কিন্তু ভালো ঋণগ্রহীতাদেরকে উৎসাহিত করার জন্য কোনো ধরনের প্রাতিষ্ঠানিক সুবিধা প্রদান করার নীতিমালা নেই। এ পরিপ্রেক্ষিতে দেশে উন্নত ঋণ সংস্কৃতি গড়ে তোলার লক্ষ্যে যারা নিয়মিত ঋণ পরিশোধ করেন তাদেরকে অতিরিক্ত কিছু সুবিধা প্রদানের মাধ্যমে উৎসাহিত করার প্রয়োজন রয়েছে। তাই ভালো ঋণগ্রহীতাদের চিহ্নিত করে তাদেরকে প্রণোদনা প্রদানের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।

জানা গেছে, রাজনৈতিক সহিংসতার কারণে ক্ষতি বিবেচনায় নিয়ে সম্প্রতি ৫০০ কোটি বা তার বেশি পরিমাণ ঋণ খেলাপীদের মাত্র ১ ও ২ শতাংশ ডাউনপেমেন্ট দিয়েই ১২ বছরের জন্য ঋণ পুনর্গঠন করে খেলাপী ঋণ নিয়মিত করার সুযোগ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

এর আগের বছরও নামমাত্র ডাউনপেমেন্ট দিয়ে খেলাপী ঋণ পুনঃতফসিল করে নিয়মিত করার সুযোগ দেওয়া হয়। বারবার বড় অঙ্কের খেলাপীদের ছাড় দেওয়ায় নিয়মিত ঋণ পরিশোধ করা ভালো গ্রাহকরা প্রশ্ন তোলেন। তাই এবার ভালো গ্রাহকদের ক্ষেত্রে প্রণোদনা ঘোষণা করলো বাংলাদেশ ব্যাংক।

এসএই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ