আশা করছি সব নির্বাচনেই বিএনপি আসবে: যোগাযোগমন্ত্রী

kader
যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

kader‘আমরা আশঙ্কা করছি না। আমরা সব নির্বাচনে আশা করি বিরোধী দল বা বিএনপি নির্বাচনে আসবে।’-উপজেলা নির্বাচনে বিএনপি’র অংশগ্রহণ করা বা না করার প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সোমবার সকালে মাদারীপুরের শিবচরে পদ্মা সেতুর এপ্রোচ সড়কের প্রকল্প এলাকা পরিদর্শনে এসে এ কথা বলেন।

বিরোধী দলকে সহিংসতা পরিহার করে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচীতে আসার আহবান জানিয়ে যোগাযোগমন্ত্রী আরো বলেন, অনুকূল পরিবেশ তৈরির জন্য সরকার উদ্যোগ নিয়েছে। আস্তে আস্তে সব কিছুই স্বাভাবিক হয়ে যাবে। বিএনপি আজ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করছে, সরকার সহযোগিতা করছে। স্বাভাবিক রাজনীতির কর্মকান্ডে এবং অহিংস কর্মকান্ডে সরকার বাধা দেবে না। শান্তিপূর্ণ কর্মসূচীর প্রতি আমাদের সব ধরণের সহযোগিতা থাকবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- সড়ক ও জনপথের  অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী গোপালগঞ্জ (জোন) আবু কাসেম, তত্ত্ববধায়ক প্রকৌশলি গোপালগঞ্জ সড়ক সার্কেল  মো. ইকবাল হোসেন, মাদারীপুর সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বার্হী প্রকৌশলী কবির উদ্দিন আহমেদ, শিবচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইকবাল হুসাইন প্রমুখ।

পদ্মা সেতুর এ্যাপ্রোচ সেতুর সামগ্রী দ্রুত গতিতে আসছে এবং কাজ চলছে উল্লেখ করে যোগাযোগমন্ত্রী বলেন, সার্বক্ষণিকভাবে সেনাবাহিনীর তত্ত্ববধানে পদ্মা সেতুর এ্যাপ্রোচ সেতুর কাজ চলছে। প্রতিকূল অবস্থার মধ্যেও বিশ্বব্যাংকের প্রি-কোয়ালিফাইড ৩টি কোম্পানী দরপত্র জমা দিয়েছে। আমরা আশা করছি জুন মাসে মূল পদ্মা সেতুর কাজ শুরু করা হবে।

এখানে নতুন একটি সুখবর দেন যোগাযোগ মন্ত্রী। তিনি বলেন, নদী শাসনের ৭ হাজার কোটি টাকার কাজও জুন মাসে শুরু হবে। বর্তমানে পদ্মা নদীর মাওয়া ও কাওড়াকান্দি দুই পাড়ে ১৬শত কোটি টাকার কাজ চলছে।

যোগাযোগমন্ত্রী পদ্মাসেতুর প্রকল্প এলাকা পরিদর্শন কাজে সকালে একটি বিশেষ স্পিডবোটযোগে মাদারীপুরের কাওড়াকান্দি ঘাটে এসে পৌঁছেন। সেখান থেকে পদ্মা সেতুর এ্যাপ্রোচ সড়কের কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন শেষে সড়কপথে নড়াইলের কালনা ফেরিঘাটের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন। এ সময় তার সাথে ছিলেন যোগাযোগ মন্ত্রণালয়, সড়ক ও জনপথ বিভাগ এবং সেনাবাহিনীর পদ্মা সেতুর প্রকল্প এলাকায় নিয়োজিত সেনাবাহিনীর কর্মকর্তারা।

সাকি/