সিআরআর ও এসএলআর আলাদাভাবে দেখানোর নির্দেশ বাংলাদেশ ব্যাংকের

bangladesh bank

bangladesh bankনগদ জমা সংরক্ষণ (সিআরআর) ও বিধিবদ্ধ জমা সংরক্ষণ (এসএলআর) আলাদাভাবে দেখানোর জন্য ব্যাংকগুলোকে নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। সংশোধিত ব্যাংক কোম্পানি আইনে এ দুটি খাতকে আলাদাভাবে দেখানোর বিধান রাখা হয়েছে। আগামি মাস থেকে এ নিয়ম কার্যকর হবে। প্রচলিত নিয়মে এই দুটি বিষয় একত্রে হিসাব করা হয়।

রোববার বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে সিআরআর ও এসএলআর  আলাদাভাবে দেখানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ব্যাংক-কোম্পানি আইন সংশোধনীর ফলে প্রচলিত ধারার ব্যাংকগুলোর সিআরআরের অতিরিক্ত নগদ জমাসহ সহজে বিনিময়যোগ্য সম্পদের রক্ষণীয় মাত্রা দৈনিক ভিত্তিতে তাদের মোট তলবী ও মেয়াদি দায়ের ১৩ শতাংশের এবং ইসলামী ব্যাংকগুলোর ক্ষেত্রে এই মাত্রা ৫ দশমিক ৫ শতাংশের কম হবে না।

অন্যদিকে, সাপ্তাহিক ভিত্তিতে মোট তলবি ও মেয়াদী দায়ের ৬ শতাংশ সিআরআর হিসেবে সংরক্ষণ করার বিধান রয়েছে। একইসঙ্গে দৈনন্দিন ভিত্তিতে মোট তলবি ও মেয়াদী দায়ের সাড়ে ৫ শতাংশ প্রভিশন রাখতে হবে। এছাড়া সিআরআর ও এসএলআর সংরক্ষণের ক্ষেত্রে মুদ্রানীতি বিভাগের নির্দেশনা মেনে চলার কথা বলা হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের একাধিক কর্মকর্তা জানান, সিআরআর ও এসএলআর বর্তমানে একত্রে হিসাবা করা হয়। দুয়ে মিলে প্রচলিত ধারার ব্যাংকগুলো ১৯ শতাংশ এবং ইসলামি ব্যাংকগুলো সাড়ে ১১ শতাংশ কেন্দ্রীয় ব্যাংকে সংরক্ষণ করে। এর মধ্যে উভয় ধরনের ব্যাংকের ক্ষেত্রে বাধ্যতামূলক ছয় শতাংশ সিআরআর হিসেবে নগদে রাখতে হয়। বাকী অংশ বিল ও বন্ডের মাধ্যমে সংরক্ষণ করা যায়। তবে সিআরআরের হিসেবে যে পরিমাণ অর্থ রাখতে হয় তার বাড়তি অংশ এসএলআর হিসেবে দেখানো যায়।