শনিবার, অক্টোবর ৩১, ২০২০
Home শিক্ষা রাবিতে সান্ধ্যকালীন স্নাতকোত্তর কোর্স বন্ধের প্রতিবাদে বিক্ষোভ

রাবিতে সান্ধ্যকালীন স্নাতকোত্তর কোর্স বন্ধের প্রতিবাদে বিক্ষোভ

রাবিতে সান্ধ্যকালীন স্নাতকোত্তর কোর্স বন্ধের প্রতিবাদে বিক্ষোভ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) বিভিন্ন বিভাগে চালুকৃত সান্ধ্যকালীন মাস্টার্স কোর্স বন্ধের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে প্রগতিশীল ছাত্রজোট।

শনিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ইউনিয়নের টেন্ট থেকে এ বিক্ষোভ মিছিলটি বের হয়। মিছিলটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে টুকিটাকি চত্ত্বরে এসে সমাবেশে মিলিত হয়। এ সময় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ-সম্পাদক আবু সুফিয়ান বকসি, ছাত্রমৈত্রীর সভাপতি সুমন অগাস্টিন সরেন, ছাত্র ফেডারেশনের সাধারণ-সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল ময়িজ, ছাত্রফ্রন্টের সাধারণ-সম্পাদক আলমগীর হোসেন সুজন।

এ সময় বক্তরা বলেন, এভাবে যদি ক্যাম্পাসে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুকরণে কোর্স চালু করে তবে অচিরেই এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষামান নিয়ে প্রশ্ন দেখা দেবে। আমরা অবিলম্বে এইসব কোর্স বন্ধের জোড়ালো দাবি জানাচ্ছি।

তারা আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এ বিশ্ববিদ্যালয়টিকে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়করণের দ্বার উন্মৃক্ত করে দিচ্ছে। মেধা বিকাশের এই প্রতিষ্ঠান ক্রমেই সনদ বিক্রির বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। প্রতিবাদে আমরা ক্যাম্পাসের বিভিন্ন জায়গায় পোস্টার সাটানোর চেষ্টা করলে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তাতে বাধা দেয়।

পোস্টার সাটানোর বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর তারিকুল ইসলাম মিলন বলেন, পোস্টার সাটাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমতি লাগে। কিন্তু তারা অনুমতি নেয় নি। বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তার জন্য আমরা পোস্টার সাটাতে তাদেরকে নিষেধ করেছি কেবল।

প্রসংগত, চলতি মাসে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ৭টি বিভাগে সান্ধ্যকালীন স্নাতকোত্তর কোর্স চালুর সিদ্ধান্ত নেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এরই ধারাবাহিকতায় বিভাগগুলো উচ্চ টিউশন মূল্যে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। যার প্রতিবাদে শনিবার থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য আন্দোলনে নামে প্রগতিশীল ধারার চারটি ছাত্র সংগঠন।

অনেক আগ থেকেই বাণিজ্য অনুষদ ভুক্ত চারটি বিভাগে সান্ধ্যকালীন এমবিএ কোর্স চালু রয়েছে। ২০১০ সালে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের তোপে একবছর বন্ধ থাকলেও পরবর্তীতে ফের চালু করে এই কোর্সগুলো।