বাংলার ভিন্নধর্মী ভর্তা

VortaBবাংলার মানুষের কাছে বিভিন্ন সবজির ভর্তা অনেক পছন্দের খাবার।খাবার তালিকায় মাছ, মাংস, ডিম,ডাল সব সময়ই থাকে। এর বাইরে মাঝে মধ্যে খাওয়া হয়ে থাকে বিভিন্ন পদের ভর্তা। সচরাচর আলু, বেগুন ভর্তা সবাই খেয়ে থাকি। তালিকার বাইরে থাকা ভর্তার আয়োজন নিয়ে অর্থসুচকের পক্ষ থেকে জানানো হল।

কালিজিরা, চিনা বাদাম, তিল আমাদের খুব পরিচিত খাদ্য। কিন্তু এগুলোর ভর্তা হয়তো সবাই খায়নি। এগুলো এমনিতে খেলে যে উপকার পাওয়া যায়, ভর্তা করে খেলেও একই উপকার পাওয়া যায়। এগুলোর সাথে রয়েছে কলার খোসা ভর্তা। এই চার পদের ভর্তা ঘরে বসে খুব সহজে কিভাবে বানানো যায় তা জানানো হল।

কালিজিরা ভর্তা: কালিজিরা ভালোভাবে ধুয়ে শুকিয়ে নিতে হবে।কালিজিরা হালকা করে ভেজে নিতে হবে।এখন যেভাবেই হোক এটাকে ভালো করে গুঁড়া করে নিতে হবে।এবার কাঁচা মরিচ, পেয়াজ কুচি এবং লবণ দিয়ে মেখে নিতে হবে।তৈরি হয়ে গেল কালিজিরা ভর্তা।এখন আপনার পছন্দ অনুয়ায়ী পরিবেশন করুন।

চিনা বাদাম ভর্তা: প্রথমে চিনা বাদামের খোসা ছাড়িয়ে নিতে হবে।এরপর বাদামের গায়ে লেগে থাকা লাল খোসা ছাড়িয়ে নিতে হবে।কাঁচা বাদাম হলে একটু ভেজে নিতে হবে। তবে আগে থেকে ভাজা থাকলে আর ভাজতে হবেনা।এখন বাদামগুলোকে শিল-পাটায় বেটে নিতে হবে।বাটা বাদামের মধ্যে একটু লবণ এবং সরিষার তেল এবং ধনিয়াপাতা কুচি দিয়ে মেখে নিতে হবে। তৈরি হয়ে গেল চিনা বাদামের ভর্তা। এই ভর্তা শীতের দিনে বেশ কয়েকদিন রেখে খাওয়া যায়।

তিল ভর্তা: কালো তিল হলে খোসা ছড়িয়ে নিতে হবে। তবে সাদা তিল দিয়েও ভর্তা বানানো যায়। তিলগুলোকে একটু ভেজে নেওয়া যেতে পারে। এখন বেটে নিতে হবে। বাটারসময় একটু লবণ দিয়ে নিলে ভালো হয়। তাহলে পরে আর লবণ দিতে হবেনা। সাথে একটু ধনিয়া পাতা দিয়ে মেখে  নানা ভাবে পরিবেশন করতে পারেন। এই ভর্তা কয়েকদিন পর্যন্ত রেখে খাওয়া যায়।

কাঁচা কলার খোসা ভর্তা: কাঁচা কলা থেকে খোসা ছাড়িয়ে নিতে হবে। এবার খোসাগুলোকে কুচিকুচি করে কেটে নিতে হবে। একটু গরম পানি দিয়ে কাটা খোসাগুলো ধুয়ে নিতে হবে।এখন গরম তেলের উপর অল্প পরিমান কালিজিরা এবং রসুন দিয়ে একটু ভেজে নিতে হবে। এবার কুচিকুচি করে কাটা কলার খোসাগুলোর সাথে কাঁচা মরিচ এবং পেয়াজ দিয়ে ভেজে নিতে হবে। ভাজার সময় পরিমাণমত লবণ এবং হলুদ দিতে হবে। ভাজা শেষে গরম গরম বেটে নিতে হবে। ভাটা শেষে একটু সরিষার তেল দিয়ে মেখে নিতে হবে। এবার আপনার পছন্দমত পরিবেশন করুন।

এমআরবি/