বেক্সিমকো আউট, অরিয়ন ইন

Beximco_Orion (2)দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সূচক দুটি পুনঃসমন্বয় করা হয়েছে। সূচক থেকে চারটি কোম্পানি বাদ পড়েছে, নতুন করে ঢুকেছে সমসংখ্যক কোম্পানি। বাজারের বহুল আলোচিত কোম্পানি বেক্সিমকো লিমিডেট ডিএসই ৩০ সূচক থেকে ছিটকে পড়েছে। ঢুকেছে আরেক আলোচিত কোম্পানি অরিয়ন ফার্মাসিটিক্যালস লিমিটিড। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

আগামি রোববার থেকে সমন্বয় পরবর্তী সূচক কার্যকর করা হবে। ডিএসই৩০ থেকে আউট হওয়া অপর তিনটি কোম্পানি হলো, খুলনা পাওয়ার, স্কয়ার টেক্সটাইল ও সাউথ ইস্ট ব্যাংক লিমিটেড। অন্যদিকে ইন করা কোম্পানিগুলো হচ্ছে -ডেল্টা লাইফ ইনস্যুরেন্স, ওরিয়ন ফার্মা ও রেনেটা লিমিটেড এবং ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, কোম্পানির লেনদেনযোগ্য (ফ্রি-ফ্লোট) শেয়ারের বাজার মূলধন,গত তিন মাসের গড় লেনদেন বিবেচনায় নিয়ে করে সূচকটি সমন্বয় করা হয়েছে।

এ বিষয়ে ডিএসই’র সভাপতি আহসানুল ইসলাম টিটু অর্থসূচককে বলেন, এসঅ্যান্ডপির নির্ধারিত মাপকাঠির আলোকে সূচক সমন্বয় করা হয়েছে। যারা শর্তগুলো পূরণ করতে পারেনি তারা সূচকের বাইরে চলে গেছে। একই বিবেচনায় অপর চার কোম্পানিকে সূচকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে।

তিনি বলেন, তৃতীয় প্রান্তিকে বেক্সিমকো লোকসান করায় তাদেরকে ডিএসই৩০ থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে।

 

এদিকে ডিএসই প্রধান সূচকে ২৩টি নতুন কোম্পানি ইন করেছে। অন্যদিকে আউট হয়েছে চারটি কোম্পানি। নতুন যে ২৩টি কোম্পানি ইন করেছে সেগুলো হলো ফারইস্ট ফিন্যান্স, ইস্টার্ন ক্যাবলস, রেনউইক যজ্ঞেশ্বর, ন্যাশনাল টিউবস, বেঙ্গল উইন্ডসর থার্মোপ্লাস্টিকস, বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেমস, এএমসিএল (প্রাণ), রহিম টেক্সটাইল, এমবি ফার্মা, ইবনে সিনা, লিবরা ইনফিউশনস, গ্লোবাল হেভি কেমিক্যালস, জেএমআই সিরিঞ্জ, সেন্ট্রাল ফার্মাসিউটিক্যালস, হাক্কানি পাল্প, শমরিতা হাসপাতাল, ইনফরমেশন সার্ভিসেস নেটওয়ার্ক, পূরবী জেনারেল ইনস্যুরেন্স, প্রগতি ইন্স্যুরেন্স, প্রাইম ইনস্যুরেন্স, সানলাইফ ইনস্যুরেন্স, উসমানিয়া গ্লাস ও বার্জার পেইন্টস।

অন্যদিকে আউট হওয়া কোম্পানিগুলো হলো কে অ্যান্ড কিউ, মাইডাস ফিন্যান্স, সিভিও পেট্রোকেমিক্যালস ও রহিমা ফুড। এর ফলে আগামি রোববার থেকে ডিএসই প্রধান সূচকের কোম্পানির সংখ্যা হবে ২২৬টি। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এর সংখ্যা ছিল ২০৭টি।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ২৭ জানুয়ারি ডিএসইতে ডিএসইএক্স ও ডিএস ৩০ সূচক দুটি চালু করা হয়।

জিইউ