ঝিনাইদহে উচ্চ জিংক সমৃদ্ধ জাতের ধানের প্রদর্শনী, কৃষকদের প্রশিক্ষণ

ঝিনাইদহ প্রশিক্ষণ

ঝিনাইদহ প্রশিক্ষণঝিনাইদহে উচ্চ জিংক সমৃদ্ধ জাতের ধানের প্রদর্শনী ও কৃষকদের প্রশিক্ষন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলছে, উচ্চ জিংক সমৃদ্ধ জাতের এ ধানে শিশু ও দুগ্ধদানকারি মায়েদের ‘জিংক’-এর অভাব পূরণে অবদান রাখবে।

বুধবার সকালে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার বিষয়খালি বাজারস্থ মহারাজপুর ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে  প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়।

হারভেস্ট প্লাস বাংলাদেশের “ডেলিভারি অব হাই জিংক রাইস ইন বাংলাদেশ” প্রকল্পের সহযোগী সংস্থা হিসেবে স্থানীয় এনজিও উন্নয়ন ধারা এই প্রশিক্ষণের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ও প্রশিক্ষণ দেন উপজেলা কৃষি অফিসার ড. খাঁন মো. মনিরুজ্জামান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহারাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যন মো. আবু বকর।

অন্যান্যের মধ্যে প্রশিক্ষণ দেন কালীগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার মো. মোশাররফ হোসেন, উন্নয়ন ধারার নির্বাহী পরিচালক কৃষিবিদ শহীদুল ইসলাম, প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর হায়দার আলী, সহযোগী সমন্বয়কারী (স্থায়িত্বশীল কৃষি) কৃষিবিদ মো.  রুবেল আলী, সহযোগী সমন্বয়কারী (ট্রেনিং এন্ড ডক্যুমেন্টেশন) কৃষিবিদ কৃষ্ণ দাস সাহা। প্রশিক্ষণে ৫০ জন কৃষক প্রশিক্ষণ নেন।

বাংলাদেশের মানুষের বিশেষ করে শিশু ও দুগ্ধদানকারি মায়েদের ‘জিংক’-এর অভাব পূরণের লক্ষে বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট (ব্রি) বিশ্বে প্রথমবারের মত বাংলাদেশে উচ্চ জিংক সমৃদ্ধ ধানের জাত আবিস্কার করেছে। এই জাতটি কৃষক পর্যায়ে চাষের জন্য ছড়িয়ে দেওয়ার উদ্দেশ্যে কাজ করছে  হার্ভেস্ট প্লাস। সংস্থাটি ২০১৩-১৪ মৌসুমে সারাদেশের বিভিন্ন এলাকার মত ঝিনাইদহ জেলার কালিগঞ্জ, সদর ও শৈলকুপা উপজেলার উচ্চ জিংক সমৃদ্ধ জাতের ধানের ৫০ টি প্রদর্শণী প্লট স্থাপনের কার্যক্রম হাতে নিয়েছে।