এসএমই খাতে চলতি বছরের লক্ষ্যমাত্রা ৮৯ হাজার কোটি টাকা

handicraftsচলতি বছর ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প (এসএমই) খাতে ৮৮ হাজার ৭৫৩ কোটি টাকা ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এর পরিমাণ ২০১৩ সালের তুলনায় প্রায় ২০ শতাংশ বেশি। গতবছর ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৭৪ হাজার ১৮৭ কোটি টাকা।

বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংকে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেয় এসএমই অ্যান্ড স্পেশাল প্রোগ্রামস বিভাগ।

সম্মেলনে বক্তব্য দেন এসএমই অ্যান্ড স্পেশাল প্রোগ্রামস বিভাগের মহাব্যবস্থাপক মো. মাছুম পাটোয়ারী, উপ-মহাব্যবস্থাপক মো. আবুল বাশার, এসএম ফেরদৌস ও মো. আশরাফুল আলম, যুগ্ম-পরিচালক এস.এম. মহসিন প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে মহাব্যবস্থাপক মো. মাছুম পাটোয়ারী বলেন, দেশে বিরাজমান অস্থিতিশীল পরিবেশের মধ্যেও এসএমই খাতে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো কাঙ্খিত অর্থায়ন করেছে। ব্যবসা-বাণিজ্যে বিরূপ পরিস্থিতিতে ব্যাংকের ব্যবসায়ে এসএমই খাত অগ্রাধিকার পাচ্ছে। তাই এ খাতের ধারাবাহিক সফলতা অর্জনে চলতি বছরের জন্য লক্ষ্যমাত্রার পরিমাণ বাড়ানো হয়েছে। এতে দেশে নতুন কর্মসংস্থান তৈরি ও অভ্যন্তরীণ চাহিদা মেটাতে কার্যকর ভূমিকা রাখবে।

তিনি আরও বলেন, ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে এসএমই খাতে অর্থায়ন করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক এসএমই খাতে শ্রেণিকৃত ঋণ পুনঃতফসিলিকরণের যে সুযোগ দিয়েছে, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে তার সদ্ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। এছাড়া কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বিদ্যমান তিনস্তর বিশিষ্ট মনিটরিং ব্যবস্থার পাশাপাশি এসএমই অর্থায়ন কার্যক্রম নিবিড় পর্যবেক্ষণ করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর) শেষে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প (এসএমই) খাতে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো মোট ৬২ হাজার ৪৭২ কোটি ৫৪ লাখ টাকার ঋণ বিতরণ করেছে। এ বছরে এসএমই খাতে ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৭৪ হাজার ১৮৬ কোটি ৮৭ লাখ টাকা। সে হিসেবে চলতি বছরের নয় মাসে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর লক্ষ্যমাত্রার ৮৪ দশমিক ২০ শতাংশ ঋণ বিতরণ করেছে।

এছাড়া প্রতিবছর নারী উদ্যোক্তার সংখ্যা ও ঋণ বিতরণের পরিমাণ ক্রমান্বয়ে বাড়ছে। হিসাব করে দেখা গেছে, সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৮৩ হাজার ৭৩৮ জন নারী উদ্যোক্তাদের মধ্যে আট হাজার ৪০ কোটি টাকার এসএমই ঋণ বিতরণ করা হয়েছে, যা মোট এসএমই ঋণের ৪ শতাংশ।

এর আগে তফসিলি ব্যাংকগুলোর এসএমই বিভাগের প্রধানদের সঙ্গে এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে এসএমই নীতিমালা পুনর্মূল্যায়ন, শ্রেণিকৃত ঋণের প্রতিবেদন তৈরি, এসএমই ক্লাস্টার পরিদর্শন, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পুনঃঅর্থায়ন স্কিমের যথার্থ ব্যবহার, নারী উদ্যোক্তাদের ১০ শতাংশে ঋণ নিশ্চিত করাসহ এসএমই ঋণের ডাইভারশন ঠেকাতে ব্যাংকারদের পরামর্শ দেওয়া হয়।

এসএই/এআর