ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গায় দফায় দফায় সংঘর্ষে আহত ১৫

ফরিদপুর

Faridpurফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার যোগীবরাট গ্রামে দুইদিন ধরে দফায় দফায় সংঘর্ষে অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছে। আহতদের স্থানীয় হাসপাতাল ও ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে ওই এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, রোববার আলফাডাঙ্গা উপজেলার ৬ নম্বর পাচুড়িয়া ইউনিয়নের যোগীবরাট গ্রামে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুখু মিয়া ও জালাল কাজীর মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার জের ধরে রোববার বিকালে ভেন্নাতলা বাজারে দুখু মিয়ার পক্ষের লোকজন একটি দোকান ভাংচুর ও লুটপাট করে। পরে উভয় পক্ষের লোকজন জালাল কাজীর পক্ষের লোকজন অপর পক্ষের দু’টি দোকান ভাংচুর করে। অতপর রাত্র সাড়ে এগারটার দিকে ওই দুই গ্রপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও বাড়ী ঘর ভাংচুরের ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে রাতেই আলফাডাঙ্গা থানা পুলিশ এলাকায় গিয়ে পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত করে। কিন্তু সোমবার সকালে দুই গ্রপের সমর্থকরা সংঘবদ্ধ হয়ে রামদা, লাঠিসোটা সহ দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হলে উভয়পক্ষের কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়। আহতদের বোয়ালমারী ও আলফাডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

খবর পেয়ে আলফাডাঙ্গা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। একই সাথে সম্ভাব্য সংঘর্ষ এড়াতে পুলিশ মোতায়েন করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে আলফাডাঙ্গা থানার ডিউটি অফিসার এএসআই কামরুজ্জামান বলেন, পরিস্থিতি বর্তমানে পুলিশের নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। এছাড়া সম্ভাব্য সংঘর্ষ এড়াতে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তিনি জানান, পরিস্থিতি সামাল দিতে তাৎক্ষণিকভাবে দুই জনকে আটক করা হয়েছে।