সংরক্ষিত নারী আসনে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে ইসি

ec

নির্বাচন কমিশনসংরক্ষিত নারী আসনে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। সাধারণ নির্বাচনের ফলাফল সরকারি গেজেট আকারে প্রকাশ ও নির্বাচিতদের শপথ গ্রহণ করায় কমিশন এ প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে ইসি সূত্র থেকে জানা যায়।

সোমবার সংরক্ষিত মহিলা আসনে নির্বাচনের জন্য মনোনয়নপত্র প্রস্তুত করে বিজি প্রেসে পাঠানো হয়েছে।

ইসি সূত্রে জানা যায়, স্থগিত আট আসনে ১৬ জানুয়ারি নির্বাচন সম্পন্ন করার পর এ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

সংবিধানের ৬৫ (৩) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচিত সাধারণ সংসদ সদস্যদের শপথ গ্রহণের পরবর্তী ৩ দিনের মধ্যে সংসদ সচিবালয় থেকে রাজনৈতিক দলগুলোর প্রার্থী তালিকা নির্বাচন কমিশনে পাঠানোর বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এ তালিকা অনুযায়ী কমিশন আসন ভিত্তিতে নারী আসনের সংখ্যা নির্দিষ্ট করে একটি তালিকা প্রস্তুত করবে।

তালিকা অনুযায়ী দল ও জোটকে পরবর্তী ২১ কার্যদিবসের মধ্যে নিজ দল ও জোটের সংসদ সদস্যের নামের তালিকা দেওয়ার বিধান রয়েছে। ২১ কার্যদিবস শেষ হওয়ার পরদিন ইসি জোট ও দলের সংসদ সদস্যের তালিকা টানিয়ে দেবে এবং একই তালিকা সংসদ সচিবালয়কেও টানিয়ে দিতে বলবে।

পরবর্তীতে ইসি সংরক্ষিত আসনে নির্বাচনের জন্য তফসিল ঘোষণা করবে। সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে লড়তে প্রার্থীকে একজন সংসদ সদস্যের মনোনীত হতে হবে। দলের পক্ষ থেকে মনোনয়নপত্র দাখিল করতে হবে।

সংবিধান অনুযায়ী, নির্বাচনের সরকারি গেজেট প্রকাশের পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে সংরক্ষিত মহিলা আসনে নির্বাচন করতে হবে।

সংরক্ষিত মহিলা আসন সংখ্যাকে সাধারণ আসন সংখ্যা দ্বারা ভাগ করে ভাগফলকে রাজনৈতিক দলের প্রাপ্ত আসন দ্বারা গুণ করলে ঐ দলের মহিলা আসনের সংখ্যা পাওয়া যাবে। এক্ষেত্রে ভাগফল ভগ্নাংশ হলে যে দলের সংসদ সদস্য সংখ্যা বেশি তারা একটি বেশি সংরক্ষিত মহিলা আসন পাবে।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন হয় ৫ জানুযারি। এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ২৩০ টি, জাতীয় পার্টি ৩৩টি, ওয়ার্কার্স পার্টি ৬টি, জাসদ ৫টি, জেপি ১, তরিকত ফেডারেশন ১, বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ) ১ এবং স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ১৪টি আসন পেয়েছে।

এছাড়া স্থগিত আট আসনে ১৬ জানুয়ারি নির্বাচন হবে। আচরণবিধি লঙ্ঘনের কারণে গেজেট প্রকাশ করা হয়নি যশোর-১ ও ২ আসনের। প্রধানমন্ত্রী ২টি আসনে জয়ী হওয়ায় রংপুর-৬ আসনটি তিনি ছেড়ে দিয়েছেন। এই ক্ষেত্রে ৯০ দিনের মধ্যে ঐ আসনে নির্বাচন করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

কবির/